• সোমবার   ৩০ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৬ ১৪২৯

  • || ০৮ রজব ১৪৪৪

মাদারীপুর দর্পন
ব্রেকিং:
সারদায় কুচকাওয়াজে প্রধানমন্ত্রীকে অভিবাদন সারদায় প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শিশুদের জন্য নিরাপদ মাতৃভূমি করতে সরকার অঙ্গীকারবদ্ধ প্রধানমন্ত্রী আরসিসির ৭ উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন করবেন আজ রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে যাচ্ছেন ৪৬০ পুলিশ কর্মকর্তা বিএনপির দুর্নীতি নিয়ে সজীব ওয়াজেদ জয়ের ফেসবুক স্ট্যাটাস রাজশাহীতে প্রধানমন্ত্রী ২৫ উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন রোববার ডিজিটালাইজেশনে বাংলাদেশে বিপ্লব ঘটে গেছে : প্রধানমন্ত্রী আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু হবে : বিদায়ি সুইস রাষ্ট্রদূতকে প্রধানমন্ত্রী

শিবচরে ভোক্তা অধিকারের অভিযান, তিন দোকানে ১৯ হাজার টাকা জরিমানা

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ২৮ ডিসেম্বর ২০২২  

শিবচর প্রতিনিধিঃ মাদারীপুর জেলার শিবচরে একটি বেকারী ও দুটি কসমেটিক্স এর দোকানে অভিযান চালিয়েছে মাদারীপুর ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। এ সময় বেকারীতে ভেজাল ও মেয়াদ উত্তীর্ণ খাবার, কসমেটিক্সের দোকানে নিষিদ্ধ বিদেশী পন্য বিক্রি এবং পরিবেশকের স্টিকার পন্যের প্যাকেটে না থাকার অপরাধে তিনটি প্রতিষ্ঠানে ১৯ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক জান্নাতুল ফেরদাউস। মঙ্গলবার(২৭ ডিসেম্বর) দুপুরে শিবচরের পাঁচ্চরে এ অভিযান পরিচালিত হয়।

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, অভিযোগের ভিত্তিতে মঙ্গলবার দুপুরে শিবচরের পাঁচ্চর ইউনিয়নের ঠাকুরবাজার ভাই ভাই বেকারী অভিযান চালায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক জান্নাতুল ফেরদাউসের নেতৃত্বে এক টিম। এসময় বেকারীতে নোংরা-অপরিচ্ছন্ন পরিবেশ খাদ্য পন্য তৈরি, প্যাকেটে মূল্য না থাকা এবং মেয়াদ উত্তীর্ণ খাদ্যপন্য রাখার দায়ে বেকারীর মালিক মো.আনোয়ার হোসেনকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। পরে পাঁচ্চর বাজারে আনোয়ার কসমেটিকস এবং ইত্যাদি কসমেটিকস নামের দুটি দোকানে নিষিদ্ধ বিদেশী পন্য বিক্রি এবং পন্যের প্যাকেটে পরিবেশকের স্টিকার না থাকার অপরাধে উভয় দোকানে ৯ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এ সময় শিবচর উপজেলা স্যানেটারী ইন্সপেক্টর মো.ফজলুল হক সহ শিবচর থানা পুলিশের টিম উপস্থিত ছিলেন।

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক জান্নাতুল ফেরদাউস জানান,' আমরা বেকারীতে মেয়াদ উত্তীর্ণ খাদ্য পেয়েছি। এবং তারা অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্যপন্য তৈরি করছিল। এছাড়া কসমেটিকস এর দোকানেও নিষিদ্ধ বিদেশী পন্য ছিল। আমাদের অভিযান নিয়মিত চলবে।'