• সোমবার ০৪ মার্চ ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ২০ ১৪৩০

  • || ২২ শা'বান ১৪৪৫

মাদারীপুর দর্পন
ব্রেকিং:
আব্দুল কাদের জিলানীর (র.) মাজার জিয়ারতে প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ নির্বাচনে যথাযথ দায়িত্ব পালন করায় ডিসিদের ধন্যবাদ প্রধানমন্ত্রীর ভোক্তাদের যেন হয়রানি হতে না হয়, সেদিকে দৃষ্টি দিতে হবে বাজারে নজরদারি-মজুত ঠেকাতে ডিসিদের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর শান্তিরক্ষা মিশনে অবদান রেখে সুনাম বয়ে আনছে সশস্ত্র বাহিনী যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় সশস্ত্র বাহিনীকে সক্ষম করে তোলা হচ্ছে বেইলি রোডে অগ্নিকান্ড কবলিত ভবনে ফায়ার এক্সিট না থাকায় হতাশ নতুন নতুন অপরাধ দমনে পুলিশকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ ‘কোনো একটি জিনিস না খেলে রোজা হবে না, এ মানসিকতা পাল্টাতে হবে’ পণ্যমূল্য সহনীয় রাখতে সরকারের পাশাপাশি জনগণেরও নজরদারি চাই

পাগলা মসজিদের দান সিন্দুকে চিরকুট: লেখা ছিল যে ‘কথা’

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ৯ ডিসেম্বর ২০২৩  

কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদের ৯টি দান সিন্দুক থেকে ২৩ বস্তা টাকা পাওয়া গেছে। টাকার পাশাপাশি বিভিন্ন বৈদেশিক মুদ্রা ও বেশকিছু স্বর্ণালংকারও মিলেছে। এবারো দান সিন্দুকের টাকার সঙ্গে পাওয়া গেছে একটি চিরকুট। চিরকুটে আলিশা ইসলাম নামে অসুস্থ এক মেয়ের জন্য সুস্থতা কামনা করা হয়েছে। তবে চিরকুটে কোনো নাম-ঠিকানা পাওয়া যায়নি।
সিন্দুকের টাকার সঙ্গে পাওয়া চিরকুটটি লেখা আছে, ‘বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম। হে আল্লাহ রাব্বুল-আলামিন, তুমি আমার মেয়ে আলিশা ইসলামকে সুস্থ করে দাও। হে আল্লাহ তুমি তাকে বসার তৌফিক দাও। হাঁটার তৌফিক দাও। তুমি তার চোখের সমস্যা, মাথার সমস্যা ভালো করে দাও। হে আল্লাহ, তোমার কাছে আমি আমার মেয়ের সুস্থ জীবন ভিক্ষা চাই, আর পাঁচটা বাচ্চার মতো আমার মেয়ে যেন স্বাভাবিক থাকে। তুমি আল্লাহ আমাকে সন্তান দান করেছো তার জন্য শুকরিয়া। আলহামদুলিল্লাহ।’

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পাগলা মসজিদ দানবাক্স খোলা কমিটির সভাপতি অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মহুয়া মমতাজ।

এদিকে, ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদের দানবাক্সে শনিবার সকাল সাড়ে ৭টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ৩ কোটি ২৫ লাখ টাকা গোনা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক ও পাগলা মসজিদ কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ বলেন, ১৯ আগস্ট মসজিদের আটটি দানবাক্স খোলা হয়েছিল। তখন ২৩ বস্তায় রেকর্ড ৫ কোটি ৭৮ লাখ ৯ হাজার ৩২৫ টাকা এবং বৈদেশিক মুদ্রা, সোনার গয়না ও হীরা পাওয়া গিয়েছিল।

প্রসঙ্গত, গত ১৯ আগস্ট সর্বশেষ দানবাক্সগুলো খোলা হয়েছিল। তখন ২৩টি বস্তায়, রেকর্ড পরিমাণ ৫ কোটি ৭৮ লাখ ৯ হাজার ৩২৫ টাকা এবং বৈদেশিক মুদ্রা ও  স্বর্ণালংকার পাওয়া গিয়েছিল।