• বৃহস্পতিবার ২৫ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৯ ১৪৩১

  • || ১৭ মুহররম ১৪৪৬

মাদারীপুর দর্পন
ব্রেকিং:
তিন দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে ২১ জুলাই স্পেন যাবেন প্রধানমন্ত্রী আমার বিশ্বাস শিক্ষার্থীরা আদালতে ন্যায়বিচারই পাবে: প্রধানমন্ত্রী কোটা সংস্কার আন্দোলনে প্রাণহানি ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত করা হবে মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দেখাতে হবে : প্রধানমন্ত্রী পবিত্র আশুরা মুসলিম উম্মার জন্য তাৎপর্যময় ও শোকের দিন আশুরার মর্মবাণী ধারণ করে সমাজে সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার আহ্বান মুসলিম সম্প্রদায়ের উচিত গাজায় গণহত্যার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হওয়া নিজেদের রাজাকার বলতে তাদের লজ্জাও করে না : প্রধানমন্ত্রী দুঃখ লাগছে, রোকেয়া হলের ছাত্রীরাও বলে তারা রাজাকার শেখ হাসিনার কারাবন্দি দিবস আজ

শিবচরে আশ্রয়ন প্রকল্পর ঘরে ঘরে চীফ হুইপ পরিদর্শন, দিলেন সহায়তা

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ২৯ জুন ২০২৪  

মাদারীপুর প্রতিনিধিঃ জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ ও আওয়ামী লীগ সংসদীয় পার্টির সাধারন সম্পাদক নূর-ই-আলম চৌধুরী শুক্রবার বিকেলে হঠাৎ মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার মাদবরচর ইউনিয়নের আশ্রয়ন প্রকল্প পরিদর্শন করেন। এসময় চীফ হুইপ আশ্রয়ন প্রকল্পের বাসিন্দাদের সাথে কথা বলে বিভিন্ন সুবিধা-অসুবিধার , শান্তি শৃঙ্খলার বিষয়ে খোঁজখবর নেন। ঘরে ঘরে গিয়ে প্রশাসনিক কর্মকর্তা, উপজেলা পরিষদ, জনপ্রতিনিধি,আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ আশ্রায়ন প্রকল্পে বসবাসকারীদের খোজখবর রাখেন কিনা জানতে চান। বসবাসকারী শিক্ষার্থীরা নিয়মিত স্কুলে যায় কিনা তারও খোজ খবর নেন চীফ হুইপ। চীফ হুইপকে পেয়ে বসবাসকারীরা রাস্তা, পানি নিস্কাসনের ড্রেন নির্মান, টিউবওয়েলের পানির সমস্যার কথা জানান।

তিনি তাৎক্ষনিকভাবে সংশ্লিষ্ট দপ্তর ও জনপ্রতিনিধিদের দ্রুত রাস্তা , ড্রেন নির্মান, টিউবওয়েল স্থাপনের নির্দেশ দেন চীফ হুইপ । এসময় উপজেলা চেয়ারম্যান ডা: মো: সেলিম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন, মাদবরচর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ফজলুল হক মুন্সি প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

চীফ হুইপ মতবিনিময় কালে বলেন, আশ্রায়ন প্রকল্পে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যারা অতিথি তাদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা, উপজেলা পরিষদ, জনপ্রতিনিধি,আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ খোজখবর রাখেন কিনা তা দেখতে এসেছি। আশ্রায়ন প্রকল্পে বসবাসকারীদের যেন সকল নাগরিক সুবিধা আমরা দিতে পারি তার জন্য দোয়া করবেন। আশ্রায়ন প্রকল্প বঙ্গবন্ধুরই কমিটমেন্ট ছিল। বঙ্গবন্ধু আমাদের সংবিধানে বলে দিয়ে গিয়েছিল সকলের জন্য খাদ্য,স্বাস্থ্য,শিক্ষা,বাসস্থানের ব্যবস্থা করা হবে।

বঙ্গবন্ধু হত্যার পর অন্য কোন সরকার উদ্যোগ নেয় নাই। ৯৬ সরকারের সময় প্রধানমন্ত্রী প্রথম একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প চালু করে। এরমাধ্যমে আমরা প্রথম ভূমিহীনদের জমি ঘরের ব্যবস্থা করি। পরবর্তিতে দেশের কোথাও যেন ভূমিহীন না থাকে সে লক্ষ্যে আশ্রায়ন প্রকল্প হাতে নিয়েছি। শিবচরে অনেকগুলো ইউনিয়নে আশ্রায়ন প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। এরমধ্যে কাঠালবাড়ি ইউনিয়নেরটা নদী ভাঙ্গন কবলিত হওয়ায় অন্যত্র সড়ানো হয়েছে। চীফ আরো বলেন, আমরা এমনভাবে আশ্রায়ন প্রকল্প স্থাপন করেছি। যেখানে থাকার ব্যবস্থার সাথে সাথে কর্মসংস্থানের সুযোগ রয়েছে। একই সাথে আশ্রায়ন প্রকল্পের বসবাসকারী ছেলেমেয়েরা শিক্ষার আওতায় আসে সেভাবে এগুলো নির্মান করা হয়েছে।