• শনিবার ২৫ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪৩১

  • || ১৬ জ্বিলকদ ১৪৪৫

মাদারীপুর দর্পন

যে কারণে বিশ্বকাপ দলে নেই ‘বিকল্প’ মিরাজ

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ১৫ মে ২০২৪  

বিশ্বকাপ এলেই যেন ভাগ্যের চাকা ঘুরে যায় মেহেদী হাসান মিরাজের। ২০১৮ সালের পর প্রায় দীর্ঘ চার বছর টি-২০তে দেখা যায়নি তাকে। সেই মিরাজ ঠিকই ২০২২ টি-২০ বিশ্বকাপের দলে জায়গা করে নিয়েছিলেন।
সেই মিরাজেরই এবারও যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে উড়াল দেওয়ার গুঞ্জন উঠেছিল। মঙ্গলবার সকাল থেকে বেশকিছু গণমাধ্যমে খবরও প্রকাশ হয়েছিল। তাতে গুঞ্জনের ডালপালাও মেলেছিল আরো বহুগুণ।

গত জুলাইয়ে আফগানিস্তানের বিপক্ষে সর্বশেষ আন্তর্জাতিক টি-২০ খেলেছেন মিরাজ। সাতে নামেন বলে এমনিতেও ব্যাটিংয়ের সুযোগ খুব একটা পান না। বিস্ময়করভাবে ১৬ জুলাইয়ের ম্যাচে বলও করেননি তিনি।

এরপর বাংলাদেশ তিনটি টি-২০ সিরিজ খেলেছেন, কোনো সিরিজেই ছিলেন না মিরাজ। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে খেলেননি। বিপিএল বিজয়ী দলে খেললেও শ্রীলংকার বিপক্ষে ছিলেন না। এমনকি জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচ সিরিজে দুই দফায় ঘোষিত ২০ জন ক্রিকেটারের স্কোয়াডেও জায়গা হয়নি।

মিরাজকে নিয়ে গুঞ্জনের ডালপালা মেলার কারণ ছিলেন লিটন দাস। সাম্প্রতিক সময়ে তার ব্যাটে রান নেই। তাই টি-২০ বিশ্বকাপে বিকল্প ওপেনার হিসেবে মিরাজকে বিবেচনা করা হচ্ছিল। তবে সেটি গুঞ্জন পর্যন্তই রয়ে গেছে। কারণ, যার জন্য তাকে বিবেচনায় রাখা হয়েছিল শেষ পর্যন্ত সেই লিটনের ওপরই আস্থা রেখেছে টিম ম্যানেজমেন্ট।

মঙ্গলবার দুপুর সোয়া ১টার দিকে আনুষ্ঠানিকভাবে ১৫ সদস্যের বিশ্বকাপ দল ঘোষণা করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। এরপরই নিশ্চিত হওয়া যায় মিরাজ নয়, বরং লিটনেই আস্থা রাখছে বিসিবি।

তবে দল ঘোষণার পর থেকে অফফর্মে থাকা লিটনকে নিয়ে শুরু হয়েছে আলোচনা-সমালোচনা। কারণ, চলতি বছরে ৬টি টি-২০ ম্যাচ খেলেছেন লিটন। যেখানে মাত্র ১৩ গড়ে ৭৯ রান করেছেন এই ডানহাতি ব্যাটার। স্বাভাবিকভাবেই বিশ্বকাপের আগে লিটনের এমন ফর্ম নিয়ে উঠছে নানা প্রশ্ন।

এ নিয়ে বিসিবির প্রধান নির্বাচক গাজী আশরাফ হোসেন লিপু বলেন, ‘লিটন কেবল ওপেনারই নয়, তার বিষয়টা তুললে উইকেটকিপিং সামর্থ্যের কথাও চলে আসে। আমাদের দুটো উইকেটকিপার নিয়ে যেতেই হবে। ওপেনিংয়ে হয়তো তার পরিবর্তে রিপ্লেস করতে পারছি।’

মিরাজ নয়, লিটনের বিকল্প হিসেবে এনামুল হক বিজয়কে নিয়ে আলোচনা হয়েছে জানিয়ে বিসিবির প্রধান নির্বাচক বলেন, ‘আমরা এনামুল হক বিজয়কে নিয়েও আলোচনা করেছিলাম। তবে ফর্মহীন থাকার পরও আমাদের লিটনের ওপর আস্থা রাখতে হয়েছে। কারণ তাকে নিয়ে কাজ করা হচ্ছে এবং দুটো ম্যাচ যে তিনি খেলেননি সে সময়ও তার আস্থার জায়গা কিভাবে পুনরুদ্ধার করা যায়, সেই চেষ্টা করে যাচ্ছেন কোচিং স্টাফরা।’

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্কোয়াড: লিটন দাস, তানজিদ হাসান তামিম, সৌম্য সরকার, নাজমুল হোসেন শান্ত (অধিনায়ক), সাকিব আল হাসান, তাওহীদ হৃদয়, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, জাকের আলী অনিক, তানভীর ইসলাম, শেখ মাহেদী হাসান, রিশাদ হোসেন, তাসকিন আহমেদ (সহ-অধিনায়ক), মুস্তাফিজুর রহমান, শরিফুল ইসলাম ও তানজিম হাসান সাকিব।