• মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১৪ ১৪৩০

  • || ১৬ শা'বান ১৪৪৫

মাদারীপুর দর্পন
ব্রেকিং:
পুলিশ সপ্তাহ শুরু, উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী আইনশৃঙ্খলা সমুন্নত রাখতে পুলিশ নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে দেশপ্রেম ও পেশাদারিত্বের পরীক্ষায় বারবার উত্তীর্ণ হয়েছে পুলিশ জনগণের আস্থা অর্জন করলে ভোট পাবেন: জনপ্রতিনিধিদের প্রধানমন্ত্রী জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে উন্নয়ন কাজের ব্যবস্থাটা আমরা নিয়েছিলাম কেউ যেন ভুয়া ক্লিনিক-চিকিৎসকের দ্বারা প্রতারিত না হন: রাষ্ট্রপতি স্থানীয় সরকার বিভাগে বাজেট বরাদ্দ ৬ গুণ বেড়েছে: প্রধানমন্ত্রী স্থানীয় সরকারকে মাটি-মানুষের সঙ্গে নিবিড় সম্পর্ক গড়তে হবে শবে বরাতের মাহাত্ম্যে উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশের কাজে আত্মনিয়োগের আহ্বান সমাজের অসহায়, দরিদ্র মানুষের সহায়তায় এগিয়ে আসতে হবে

সমুদ্রের গভীরে পাওয়া গেল নতুন ভাইরাস

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ১১ নভেম্বর ২০২৩  

সমুদ্রের গভীরতম অংশে একটি নতুন ভাইরাসের সন্ধান পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। সমুদ্রের ৮ হাজার ৯০০ মিটার গভীরে পাওয়া গেছে এই ভাইরাস। বিজ্ঞানীরা বলেছেন, মারিয়ানা ট্রেঞ্চে পাওয়া ভাইরাসটি গভীরতম সমুদ্রে আবিষ্কৃত ব্যাকটিরিওফেজ ঘরানার হতে পারে। ব্যাকটিরিওফেজ এমন একটি ভাইরাস, যা ব্যাকটেরিয়াকে সংক্রমিত করে তার ভেতরেই প্রতিলিপি তৈরি করে। চীনের ওশান বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইরাস–বিষয়ক গবেষণাপত্র মাইক্রোবায়োলজি স্পেকট্রাম জার্নালে এ তথ্য প্রকাশিত হয়েছে।

জানা গেছে, প্রশান্ত মহাসাগরের মারিয়ানা ট্রেঞ্চের গভীর স্থান থেকে সংগ্রহ করা পলিতে নতুন ভাইরাসটির সন্ধান পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে সামুদ্রিক ভাইরোলজিস্ট মিন ওয়াং বলেন, ‘হ্যাডাল অঞ্চল আমাদের গ্রহের সবচেয়ে কম অন্বেষণ করা একটি এলাকা। রহস্যময় পরিবেশ আর পৃথিবীর পৃষ্ঠের গভীরতম স্থান হওয়ায় এই এলাকা সম্পর্কে খুব কম তথ্য জানা গেছে। নতুন ভাইরাসটি মহাসাগরের গভীরতম অংশে পাওয়া একটি ভাইরাস। গভীর সমুদ্রের এই ভাইরাসের নাম রাখা হয়েছে ভিবি এইচএমইওয়াই এইচ৪৯০৭। এটি ব্যাকটেরিয়া ওফেজ হ্যালোমোনাস নামক ব্যাকটেরিয়াকে সংক্রামিত করে। মারিয়ানা ট্রেঞ্চসহ অ্যান্টার্কটিকায় তাদের প্রচুর পরিমাণে দেখা যায়।’

ভাইরাসের জিন বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, ভাইরাসটি দেখতে অনেকটা ব্যাকটেরিয়া হোস্টের মতো। গবেষকেরা বলছেন, নতুন ব্যাকটিরিওফেজটি সারভিরিদেই নামক ভাইরাস পরিবার থেকে এসেছে। ভাইরাসটি সাগরের হ্যাডাল অঞ্চলে পাওয়া গেছে। পাতাল জগতের গ্রিক দেবতা হেডিসের নামে এ অঞ্চলের নামকরণ করা হয়েছে। গবেষকেরা হ্যাডাল ভাইরাসের বিশাল বৈচিত্র্য, অভিনবত্ব ও পরিবেশগত বিষয়গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করেছেন। এখন পর্যন্ত হ্যাডাল ভাইরাসের মাত্র দুটি স্ট্রেনকে বিচ্ছিন্ন করা গেছে।

বিজ্ঞানী ওয়াং বলেন, নতুন ব্যাকটিরিওফেজ শনাক্ত করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এর মাধ্যমে সমুদ্রের এই অংশের ভাইরাস তার ব্যাকটেরিয়া হোস্টের সঙ্গে বিবর্তনের মাধ্যমে কঠোর পরিবেশে কীভাবে আচরণ করে তা বোঝার সুযোগ তৈরি হবে। হ্যাডাল অঞ্চলে বেশ কয়েকটি প্রাণীর আবাসস্থল। এসব প্রাণী গভীর সমুদ্রের নিম্ন তাপমাত্রা, উচ্চ চাপ এবং আলোহীন চরম অবস্থার সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে পারে। চরম পরিবেশ কিন্তু সব সময় নতুন ভাইরাস আবিষ্কারের জন্য দারুণ জায়গা। মারিয়ানা ট্রেঞ্চ প্রশান্ত মহাসাগরের তলদেশের একটি খাত বা পরিখা, যা বিশ্বের গভীরতম সমুদ্র খাত হিসেবে পরিচিত। পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগরে অবস্থিত এই খাত মারিয়ানা দ্বীপপুঞ্জের প্রায় ২০০ কিলোমিটার পূর্বে অবস্থিত। অর্ধচন্দ্রাকার আকৃতির এই খাতের দৈর্ঘ্য প্রায় ২ হাজার ৫৫০ কিলোমিটার। এই খাতের সর্বাধিক গভীরতা ১০ হাজার ৯৮৪ মিটারের মতো।