• শনিবার ১৩ এপ্রিল ২০২৪ ||

  • চৈত্র ৩০ ১৪৩০

  • || ০৩ শাওয়াল ১৪৪৫

মাদারীপুর দর্পন

শাওয়ালের ৬ রোজা কি ধারাবাহিকভাবে রাখা জরুরি?

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ২৫ এপ্রিল ২০২৩  

রহমত, মাগফিরাত ও নাজাতের শান্তির বার্তা নিয়ে আসে মাহে রমজান। এরই মধ্যে তা বিদায় নিয়েছে। সঙ্গে চলে গেছে সেহরি, ইফতার, তারাবি, ইতিকাফের মতো বিশেষ ইবাদতের সুযোগুলোও। শুরু হয়েছে বছরজুড়ে রোজার সওয়াব লাভের মাস শাওয়াল।
শাওয়াল মাসের ছয়টি রোজা রাখার বিধান রয়েছে। তবে এ নিয়ে নানা প্রশ্নও আছে। যেমন এই রোজায় কি ধারাবাহিকভাবে রাখতে হবে, নাকি আলাদা আলাদাভাবে রাখা যায়? কেউ যদি সপ্তাহের ছুটির দুই দিনে তিন ধাপে রোজাগুলো রাখতে চায় তাহলে পারবে কিনা?

এমন প্রশ্নের প্রেক্ষিতে আলেমরা বলেন, শাওয়ালের রোজাগুলো লাগাতার বা ধারাবাহিকভাবে রাখা শর্ত নয়। তাই এ রোজাগুলো কেউ চাইলে আলাদা আলাদাভাবে কিংবা কোনো বিরতি না দিয়ে ধারাবাহিকভাবে রাখতে পারে, এতে কোনো অসুবিধা নেই।

শায়েফি ও হাম্বলি মাযহাবের কিছু কিছু আলেমের মতে, শাওয়ালের রোজাগুলো তাড়াতাড়ি আদায় করে নেওয়া উচিত। কারণ, দেরি করলে অনেক সময় বিভিন্ন বিপদ-আপদ বা সমস্যার কারণে নিয়ত থাকা সত্ত্বেও রোজাগুলো রাখা হবে না। তাই যত দ্রুত সম্ভব আদায় করে নেওয়া ভালো। তবে তাড়াতাড়ি আদায় না করে মাসের মাঝখানে অথবা শেষের দিকে আদায় করলেও কোনো অসুবিধা নেই।

ইমাম নববী রহ. বলেন, শাওয়াল মাসের ছয় রোজা রাখা মুস্তাহাব। মাসের প্রথম দিকে কোনো বিরতি না দিয়ে ধারাবাহিকভাবে রোজাগুলো রাখা মুস্তাহাব। আর যদি বিরতি দিয়ে আলাদা আলাদাভাবে রাখে তবুও জায়েজ আছে। এবং এভাবেও সুন্নত পালনকারী হিসেবে গণ্য হবে। (আল-মাজমু শারহুল মুহায্‌যাব, ইসলাম সুওয়াল ওয়া জাওয়াব)