• শনিবার ২৫ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪৩১

  • || ১৬ জ্বিলকদ ১৪৪৫

মাদারীপুর দর্পন

উজিরপুরে শিক্ষার্থীকে ধষর্নের পর হত্যা, পিতা ও ছেলে গ্রেফতার

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ১৫ মে ২০২৪  

বরিশালের উজিরপুর উপজেলায় দ্বিতীয় শ্রেনীর স্কুলছাত্রীকে ধর্ষনের পরে হত্যা মামলার আসামী পিতা ও ছেলেকে গ্রেফতার করেছে বরিশাল র‌্যাব-৮ সদস্যরা। মামলা ও স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে, বাবুগঞ্জ উপজেলার আগরপুর গ্রামের আমির ফকিরের মেয়ে তামান্না আক্তার তার দুরসম্পর্কের খালু অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য মো.সুলতান হাওলাদারের উজিরপুর পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের বাড়িতে ২রা মে বেড়াতে আসে। পরে দিন ৩ মে দুপুরে শিশুকে ঘরে একা পেয়ে মো.সুলতান হাওলাদারের বখাটে ছেলে তাওহীদ হাওলাদার তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষন করে। এসময় শিশুর চিৎকারে পরিবারের অন্য সদস্যরা বিষয়টি জানতে পেরে এলাকার লোকজন জানার আগেই ধর্ষিতা শিশুকে শ্বাসরোধ করে নির্মমভাবে হত্যা করে বসত ঘরের দালানের সিড়ির উপর টিনের রুয়ার সাথে ঝুলিয়ে রাখে।

পরে সুলতানের পরিবারের লোকজন ধর্ষনের ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার জন্য শিশু আত্মহত্যা করেছে বলে শিশুর পরিবারকে জানান। এই ঘটনাটি নিয়ে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য  ও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। পরে ওই ধর্ষিতা শিশুর মা বাদী হয়ে ৮ মে উজিরপুর মডেল থানায় নারী ও শিশু নিযাতন দমন আইনে (ধর্ষনের পরে হত্যা) মামলা দায়ের করেন, যার নং-১০।

পরে বরিশাল-৮ এর সদস্যরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ফরিদপুর জেলার কোতয়ালী থানার চুনাঘাট বাজার থেকে প্রধান আসামী ধর্ষক তাওহীদ হাওলাদার ও তার সহযোগী পিতা মো.সুলতান হাওলাদারতে ১৪ মে দুপুরে গ্রেফতার করে বরিশাল নিয়ে আসা হয়েছে।

পরে ১৪ মে সন্ধ্যায় র‌্যাব-৮ সদস্যরা উজিরপুর থানায় পিতা ও ছেলেকে হস্তান্তর করেন। আজ বুধবার সকালে গ্রেফতারকৃত দুইজনকে বরিশাল আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করা হবে। এঘটনায় উজিরপুর থানার ওসি(তদন্ত) তৌহিদুজ্জামান সোহাগ বলেন, ধর্ষনের পরে হত্যা মামলার দুই আসামীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৮ সদস্যরা। তারা সন্ধ্যায় আমাদের থানায় আসামীদের হস্তান্তর করেছে।