• শনিবার ১৩ এপ্রিল ২০২৪ ||

  • চৈত্র ৩০ ১৪৩০

  • || ০৩ শাওয়াল ১৪৪৫

মাদারীপুর দর্পন

বড় অংকের টাকা আনা-নেওয়ায় ৯৯৯ নম্বরে কলের পরামর্শ পুলিশের

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ২৩ মার্চ ২০২৩  

রমজান কিংবা ঈদ বা উৎসবকেন্দ্রিক ব্যবসা-বাণিজ্য এবং কেনাকাটার কারণে বেড়ে যায় আর্থিক লেনদেন। টাকা পয়সা বহন করে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় নেওয়ার ক্ষেত্রে পুলিশের মানি এসকর্টের সহায়তা নেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

সম্প্রতি উত্তরায় ডাচ বাংলা ব্যাংকের টাকা ছিনতাইয়ের মতো ঘটনার পুনরাবৃত্তি এড়াতে রমজান মাসে শুধু ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ এলাকা নয়, দেশের যে কোনও জায়গা থেকে টাকা স্থানান্তরের জন্য

মানি এসকর্ট সেবা নেওয়ার জন্য ৯৯৯ নম্বরে কল করার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। রাজধানীর রাজারবাগ এবং মিরপুরে মানি এসকর্ট সেবা দেওয়ার জন্য পর্যাপ্ত সংখ্যক পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন। যে কেউ যে কোনও সময় এই সুবিধা নিয়ে নিরাপদে টাকা স্থানান্তর করতে পারছেন বলে জানিয়েছেন ডিএমপির ঊর্ধতন কর্মকর্তারা।

কর্মকর্তারা বলছেন, ঈদের আগে বিভিন্ন গার্মেন্টসের বেতন পরিশোধের জন্য ব্যাংক থেকে টাকা আনার জন্য মানি এসকর্ট ব্যবহার হয়ে থাকে। দেশের যে কোনও জায়গায় টাকা স্থানান্তরের জন্য যে কোনও ব্যক্তি কিংবা প্রতিষ্ঠান সহায়তা চাইতে পারেন। এইসব সহায়তা প্রত্যাশীদের সেবা প্রদানের জন্য সব জেলার পুলিশ সুপারদের পুলিশ সদর দফতর থেকে নির্দেশনা দেয়াও রয়েছে। এছাড়াও ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ যে কোনও ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের টাকা স্থানান্তরের জন্য নিয়ন্ত্রণ কক্ষে কিংবা সংশ্লিষ্ট থানায় কিংবা ট্রিপ অনলাইনে ফোন করে এর সহায়তা নিতে পারছেন। আমরাও সহায়তা দিতে প্রস্তুত।

ব্যক্তিগত পর্যায়ে টাকা স্থানান্তর কিংবা বহনের ক্ষেত্রে পুলিশি সহায়তা নিতে গেলে অনেক প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয় এমন অভিযোগের বিষয়ে ডিএমপির কর্মকর্তারা বলছেন, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের প্রতিটি ডিসি, উপ-পুলিশ কমিশনারকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে যারা টাকা স্থানান্তরের জন্য সহায়তা চাইবেন তাদের বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে দেখার জন্য। এছাড়া মানি এসকর্ট সেবা নেওয়ার জন্য বিভিন্ন জায়গায় বিলবোর্ড বা ব্যানার ফেস্টুন টানানো হয়, যাতে করে জনসাধারণ এর সেবা ভোগ করতে পারেন।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ ডিএমপি অতিরিক্ত কমিশনার হাফিজ আক্তার বলেন, মানি এসকর্টের সহায়তা চাইতে গিয়ে কেউ যদি কোনও ধরনের হয়রানির শিকার হয় এসব বিষয় ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানানোর অনুরোধ জানানো হয়েছে। সংশ্লিষ্ট এলাকার ডিসিকে এসব বিষয়ে অবহিত করার কথাও বলেন। সহায়তা চাইতে গিয়ে কেউ যদি কোনও হয়রানি শিকার হয় তাহলে সে বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যে কোনও জায়গা থেকে যে কোনও ব্যক্তি কিংবা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে মানি এসকর্ট সেবা নেওয়ার জন্য ৯৯৯ এ ফোন করার পরামর্শ দেন পুলিশের উর্ধ্বতন এই কর্মকর্তা।