• রোববার ২৬ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪৩১

  • || ১৭ জ্বিলকদ ১৪৪৫

মাদারীপুর দর্পন

সুস্বাদু ট্যাংরা মাছের ঝোল, দেখুন রেসিপি

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩  

মাছের দেশ হিসেবে বাংলাদেশ খুবই বিখ্যাত। মাছের সুস্বাদু পদ তৈরি করা এবং খাওয়া বাঙালি খাদ্য ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির একটা অংশ হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে বিশ্বজুড়ে।
দুপুর বা রাত; অর্থাৎ যেকোনো বেলাই-ই বাঙালির পাতে মাছের একটি পদ থাকা চাই; নয়তো সে বেলায় বাঙালির খাবারের পরিপূণ্যতা আসে না।

আর তাই আজ ট্যাংরা মাছের ঝোল রান্না করতে পারেন। তবে রান্নার আগে একটু ট্যাংরা বন্দনা শুনুন- ট্যাংরা মাছ খুবই সুস্বাদু একটি মাছ। দুপুর বেলায় গরম ভাতের সঙ্গে এই ট্যাংরা মাছের ঝোল খেতে খুবই ভালো লাগে।

তো আর দেরি না করে এবার দেখে নিন রেসিপিটি-

উপকরণ

৩০০ গ্রাম ট্যাংরা মাছ কেটে ধুয়ে পরিষ্কার করে লবণ হলুদ মাখিয়ে রাখা।
৩-৪ টি আস্ত কাঁচা মরিচ
১ চা চামচ হলুদ গুঁড়ো
৩ টেবিল চামচ সর্ষের তেল
১ টেবিল চামচ আদা রসুন বাটা
২ টি বড় টমেটো মিহি করে কুচানো
১ চা চামচ ধনে গুঁড়ো
১/২ চা চামচ কালো জিরে
১ টেবিল চামচ কাশ্মীরি মরিচ গুঁড়ো
১/২ চা চামচ শুকনা মরিচ গুঁড়ো
১ টেবিল চামচ ধনেপাতা কুচি
স্বাদমতো লবণ

প্রণালী

> কড়াইতে ২ টেবিল চামচ সর্ষের তেল দিয়ে, তেল ভালো করে গরম হবার পর আগে থেকে নুন হলুদ মাখিয়ে রাখা ট্যাংরা মাছগুলোকে হালকা করে ভেজে নিতে হবে। মাছ ভাজার পর কড়াইতে আরো ১ টেবিল চামচ সর্ষের তেল দিয়ে, ওই তেল গরম হবার পর তাতে কালো জিরা ও গোটা কাঁচা মরিচ ফোড়ন দিতে হবে। সুগন্ধ বেরোলে কুচি করে কেটে রাখা টমেটোগুলোকে দিয়ে দিতে হবে ও তেলের মধ্যে ভালো করে ভাজতে হবে। এর মধ্যে সামান্য লবণ দিতে হবে তবে টমেটোগুলো খুব তাড়াতাড়ি নরম হয়ে যাবে।

> টমেটোগুলো নরম হয়ে যাবার পরে, ওই তেলের মধ্যে এক এক করে হলুদ গুঁড়ো, শুকনা মরিচ গুঁড়া, কাশ্মীরি মরিচ গুঁড়া, আদা-রসুন বাটা ও ধনের গুড়া দিতে হবে। এবার কড়াইতে ১ টেবিল চামচ পানি দিয়ে সব মসলাগুলোকে ভালো করে ভাজতে হবে। ৩-৪ মিনিট ভাজার পর মসলা থেকে তেল বেরিয়ে আসলে তার মধ্যে আগে থেকে করে রাখা দেড় কাপ গরম পানি ঢেলে দিতে হবে। এবার স্বাদমতো লবণ দিতে হবে। ঝোল ফুটে উঠলে এর মধ্যে ভেজে রাখা ট্যাংরা মাছগুলোকে দিয়ে দিতে হবে। এবার কড়াইতে একটি ঢাকনা দিয়ে ঢেকে ঝোল সমেত মাছগুলোকে দু মিনিট ফুটতে দিতে হবে।

> মাছের ঝোল ফুটে উঠলে ধনেপাতা ছড়িয়ে নামিয়ে নিতে হবে। গরম ভাতের সঙ্গে এই ট্যাংরা মাছের ঝোল পরিবেশন করতে হবে।

উল্লেখ্য, এই পুরো রান্নাটাই মাঝারি তাপে করতে হবে; তবেই রান্নাটি খুবই সুস্বাদু হবে।