• শনিবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৯ ১৪২৯

  • || ০৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

মাদারীপুর দর্পন
ব্রেকিং:
প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে বঙ্গবন্ধু ট্রাস্টের সভা বাংলাদেশ সবসময় ভারতের কাছ থেকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার পায় কর ব্যবস্থাপনা তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী ১০ টাকায় টিকিট কেটে চোখ পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী আইসিওয়াইএফ থেকে পাওয়া সম্মাননা প্রধানমন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর শিক্ষা ব্যবস্থা যাতে পিছিয়ে না যায় সে ব্যবস্থা নিচ্ছি প্রধানমন্ত্রীর কাছে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল হস্তান্তর প্লিজ যুদ্ধ থামান, সংঘাত থামাতে সংলাপ করুন: শেখ হাসিনা হানিফের সংগ্রামী জীবন নতুন প্রজন্মের রাজনৈতিক কর্মীদের দেশপ্রেম ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত করবে মোহাম্মদ হানিফ ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একজন পরীক্ষিত নেতা

পর্যটকদের সুবিধায় ‘সিলেট পর্যটন ম্যাপ’ গাইড চালু

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ১৪ নভেম্বর ২০২২  

প্রকৃতি কন্যা সিলেট। পাহাড়, টিলা আর দিগন্ত বিস্তৃত চা-বাগানের সবুজ চাদরে ঢেকে রয়েছে সিলেট। জেলার আনাচে-কানাচে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে প্রকৃতির রূপ-লাবণ্যের অপূর্ব ভান্ডার। প্রকৃতির এই লীলাভূমি মুগ্ধ করে সবাইকে।
তাইতো সারা বছরই সিলেট থাকে পর্যটকমুখর। দেশের নানা প্রান্ত থেকে ভ্রমণপিপাসুরা ছুটে আসেন সিলেটে। বিশেষ করে ছুটির দিনে সিলেটে ঢল নামে পর্যটকদের। প্রকৃতির অপার সম্ভবনাময় সিলেটকে ঢেলে সাজাতে কাজ করছে জেলা প্রশসানসহ পর্যটন সংশ্লিষ্টরা।

এবার পর্যটকদের সুবিধার জন্য জেলা প্রশাসন তৈরি করেছে ‘সিলেট পর্যটন ম্যাপ’। এই ম্যাপের মাধ্যমেই সিলেটের সব পর্যটন স্পটের তথ্য পাবেন পর্যটকরা। এমনকি ম্যাপ ধরে যেতে পারবেন গন্তব্যে। এটি পর্যটকদের গাইড হিসেবে কাজ করবে। জেলা প্রশাসনের এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন পর্যটক সংশ্লিষ্টরা।

সিলেট জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে তৈরি করা ‘সিলেট পর্যটন ম্যাপ’-এ সিলেটের সব দর্শনীয় স্থান ও দূরত্ব তুলে ধরা হয়েছে। সিলেট সার্কিট হাউজকে কেন্দ্র করে সেখান থেকে প্রতিটি স্পটের দূরত্ব ও দিক নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও ভ্রমণ সংক্রান্ত অন্যান্য সব সুযোগ-সুবিধার তথ্য প্রাপ্তির লক্ষ্যে একটি হটলাইন নম্বর চালু করা হয়েছে। ভ্রমণ সংক্রান্ত কোনো অভিযোগ থাকলে সেটাও পর্যটকরা জানাতে পারবেন এই নাম্বারে।

জেলা প্রশাসনের তৈরিকৃত ম্যাপে দেখা গেছে, সুরমা নদীর তীরবর্তী সিলেট সার্কিট হাউজ থেকে সব দর্শনীয় স্থানের দূরত্ব উল্লেখ করা হয়েছে। এছাড়া ম্যাপে প্রদর্শিত ‘কিউ আর কোড’ স্ক্যান করলে পাওয়া যাবে জেলার উল্লেখযোগ্য হোটেল, রেন্ট-এ কার, সিএনজি অটোরিকশা, বাস ইত্যাদি সংক্রান্ত তথ্য। তাছাড়া সার্কিট হাউজ থেকে প্রতিটি স্পটের দিক নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। ম্যাপের আরেকটি অংশে পর্যটন স্পটের অবস্থান, দূরত্ব ও যোগাযোগ ব্যবস্থার কথা লেখা রয়েছে। সিলেট নগর থেকে কীভাবে পর্যটন কেন্দ্রে যাবেন সে তথ্যও উল্লেখ করা হয়েছে।

বিশেষ করে দর্শনার্থীরা ভ্রমণ সংক্রান্ত অন্যান্য সব সুযোগ-সুবিধার তথ্য প্রাপ্তি এবং অভিযোগ জানাতে একটি হটলাইন নাম্বার (০১৯০৪-৬৬৭৯৫৬) চালু করা হয়েছে। এসব তথ্য সংবলিত ব্যানার ও প্রচার কাজ পর্যটন স্পটসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে টানানো হবে। বিশেষ করে বাস টার্মিনাল, বিমানবন্দর, রেল স্টেশন এবং জনসমাগম হয় এমন স্থানে ব্যাপকভাবে প্রচারণা করা হবে।

এ বিষয়ে সিলেটের জেলা প্রশাসক মো. মজিবর রহমান বলেন, পর্যটকদের সুবিধার্থে এমন উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। ‘সিলেট পর্যটন ম্যাপ’ পর্যটন স্পটসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে টানানো হবে। যেন পর্যটকরা দ্রুত তাদের ‘ট্যুর প্ল্যান’ করতে পারেন। সে লক্ষ্যে জেলা প্রশাসন কাজ করছে।

তিনি আরো বলেন, পর্যটকদের কোনো অভিযোগ ও কোনো তথ্য প্রাপ্তির লক্ষ্যে ২৪ ঘণ্টার জন্য একটি হটলাইন নম্বর চালু করা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের দায়িত্বশীলরা পর্যটকদের সহযোগিতায় সার্বক্ষণিক নিয়োজিত থাকবেন।