• শনিবার   ২০ আগস্ট ২০২২ ||

  • ভাদ্র ৪ ১৪২৯

  • || ২২ মুহররম ১৪৪৪

মাদারীপুর দর্পন
ব্রেকিং:

‘দেশের মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় জীবন দিতেও প্রস্তুত’

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ২৫ জুন ২০২২  

দেশের মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় যেকোনো ত্যাগ স্বীকারের অঙ্গীকার করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বলেন, প্রয়োজনে জীবন দিতেও প্রস্তুত আছেন।

শনিবার (২৫ জুন) মাদারীপুরের শিবচরে আওয়ামী লীগের জনসভায় প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ সম্ভব নয় দাবি করে যারা সমালোচনা করেছিলেন এই সেতু উদ্বোধন তাদের জন্য উপযুক্ত জবাব। প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই অঞ্চলের ২১টি জেলার মানুষের দুঃখ ঘুচে যাবে, পরিবর্তন হবে ভাগ্যের। জানান, সব কিছু হারিয়ে দেশের মানুষকে কাছে পেয়েছিলেন বলেই বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়িয়েছে।

জনসভায় শেখ হাসিনা বলেন, ‘বাবা, মা ভাই সব হারিয়ে পেয়েছি আপনাদের। আপনাদের মাঝেই ফিরে পেয়েছি আমার বাবার স্নেহ, মায়ের স্নেহ, ভাইয়ের স্নেহ। আপনাদের পাশেই আমি আছি। আপনাদের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য, আপনাদের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য, আমি যেকোনো ত্যাগ স্বীকারে সদা প্রস্তুত এই ওয়াদা আমি দিয়ে গেলাম। আমি আপনাদের জন্য প্রয়োজনে নিজের জীবনটাও দেব।’

এর আগে শনিবার সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে জমকালো আয়োজনে মুন্সিগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে শুরু হয় বহুল প্রতিক্ষিত পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। সুধী সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই সেতু সক্ষমতা ও অহংকারের প্রতীক।

উদ্বোধনী ভাষণে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কোটি কোটি দেশবাসীর সঙ্গে আমিও আজ আনন্দিত, গর্বিত এবং উদ্বেলিত। অনেক বাধা-বিপত্তি উপেক্ষা করে আর ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে প্রমত্তা পদ্মার বুকে আজ বহু কাঙ্ক্ষিত সেতু দাঁড়িয়ে গেছে।’ 

এরপর প্রধানমন্ত্রী মাওয়া প্রান্তে স্থাপিত টোল প্লাজায় নিজ হাতে টোল দিয়ে তার গাড়ি বহর নিয়ে শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তে যান এবং সেখানে আওয়ামী লীগ আয়োজিত সমাবেশে যোগ দেন। সেতু পার হওয়ার সময় মাঝ পথে প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতুতে দাঁড়িয়ে পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর একটি বিশেষ মহড়া উপভোগ করেন। 

উল্লেখ্য, আগামীকাল পদ্মা সেতু সর্বসাধারনের জন্য খুলে দেয়া হবে।