• শুক্রবার   ১২ আগস্ট ২০২২ ||

  • শ্রাবণ ২৮ ১৪২৯

  • || ১৪ মুহররম ১৪৪৪

মাদারীপুর দর্পন

টিকে থাকতে লড়ছেন বরিস জনসন

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ৬ জুলাই ২০২২  

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন দুই শীর্ষ মন্ত্রী তার নেতৃত্বের সমালোচনা করে পদত্যাগ করার পর রাজনৈতিকভাবে টিকে থাকার জন্য লড়াই করছেন। অর্থমন্ত্রী (চ্যান্সেলর) রিশি সুনাক এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রী সাজিদ জাভিদ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় একে অপরের ১০ মিনিটের মধ্যে পদত্যাগ করেন। তারপর প্রধানমন্ত্রীর কয়েকজন সহযোগীও দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ান।

সমালোচকরা বলছেন, এসব ঘটনা প্রমাণ করছে প্রধানমন্ত্রীর দিন শেষ।

অন্যদিকে প্রধান বিরোধীদল লেবার বলেছে, বরিস জনসনের নেতৃত্বাধীন রক্ষণশীল দল দুর্নীতিগ্রস্ত।

তবে বরিস জনসন স্পষ্ট করে বলেছেন, তিনি নিজে সরে না গিয়ে মন্ত্রিসভায় রদবদল এনে তার সরকারকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ারই পরিকল্পনা করছেন। তিনি নতুন চ্যান্সেলর হিসাবে নাদিম জাহাভির নাম ঘোষণা করেছেন। আর প্রধানমন্ত্রীর চিফ অব স্টাফ স্টিভ বার্কলে হয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ।  

পার্টিগেট কেলেঙ্কারি ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগসহ নানা ঘটনায় গত কয়েকমাস ধরে চাপে থাকা জনসনের জন্য এটি এখন পর্যন্ত তার প্রধানমন্ত্রিত্বের জন্য সবচেয়ে গুরুতর সংকট।  

বুধবার পার্লামেন্টে প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্নোত্তরের সময় এমপিদের মুখোমুখি হওয়ার পরে তিনি আরো চাপের মুখে পড়বেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সাজিদ জাভিদ বা রিশি সুনাক কেউই পদত্যাগ করার পর প্রকাশ্যে কথা বলেননি, তবে মঙ্গলবার তাদের পদত্যাগপত্র ছিল প্রধানমন্ত্রীর সমালোচনায় পূর্ণ।  

সূত্র: বিবিসি