• শুক্রবার   ১২ আগস্ট ২০২২ ||

  • শ্রাবণ ২৭ ১৪২৯

  • || ১৪ মুহররম ১৪৪৪

মাদারীপুর দর্পন

পদ্মা সেতুর নাট-বল্টু খোলা সেই যুবক বিএনপি নেতার ছোট ভাই

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ২৭ জুন ২০২২  

পদ্মা সেতুর রেলিংয়ের নাট-বল্টু খুলে নিয়ে টিকটক ভিডিও করা বায়েজিদ নামের সেই যুবককে রাজধানীর শান্তিনগর এলাকা থেকে আটক করেছে পুলিশ।

গতকাল গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন সিআইডির সাইবার ইন্টিলিজেন্স অ্যান্ড রিস্ক ম্যানেজমেন্ট বিভাগের বিশেষ পুলিশ সুপার রেজাউল মাসুদ।

জানা যায়, পদ্মা সেতুর রেলিংয়ের নাট-বল্টু খোলা সেই যুবক বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি নেতা হাবিব-উন-নবী খান সোহেলের ছোট ভাই। এর আগেও পদ্মা সেতু নিয়ে একাধিক বাজে মন্তব্য করে ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছিলেন তিনি।

এ বিষয়ে অনুসন্ধান চালিয়ে জানা যায়, বায়েজিদ মূলত পদ্মা সেতুতে এসেছিলো, নাট খোলার জন্য। তার বাইকের বনেটে নাট খোলার যন্ত্রও পাওয়া যায়। মূলত প্রথমে পদ্মা সেতুর নাট রেঞ্জ দিয়ে খুলে, ভিডিও করার উদ্দেশ্যে হাত দিয়ে খুলে টিকটক ভিডিও করেন।

এছাড়া টিকটক ভিডিও করা যুবক বায়েজীদ এক সময়ে ছাত্রদলকর্মী ছিলেন। তার বড় ভাই হাবিব উন নবী সোহেলের সহযোগিতায় তিনি ঢাকায় এসে ব্যবসার সঙ্গে জড়ান বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসী ও পটুয়াখালী বিএনপি সংশ্লিষ্টরা।

তারা বলছেন, বাইজীদ অতীতে ছাত্রদলের সক্রিয় কর্মী ছিলেন। পটুয়াখালী জেলা ছাত্রদলের সা‌বেক সভাপ‌তি গাজী আশফাকুর রহমান বিপ্লবের সময়ে বিএন‌পি ও ছাত্রদ‌লের মি‌ছিল-মি‌টিং‌য়ে নিয়মিত অংশ নিতেন তিনি।

এর আগে কাইসার ৭১ (Kaisar71) নামক একটি টিকটক অ্যাকাউ এ নিয়ে ঢাকাটাইমস সংবাদও প্রকাশ করে।

বিষয়টি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর নজরে এলে তাকে ধরতে অভিযান শুরু হয়। এরপরই তাকে আটক করে সিআইডির সাইবার পুলিশ সেন্টার—সিপিসি। এর আগে সিআইডি প্রধান ব্যারিস্টার মাহবুবুর রহমান এ বিষয়ে তড়িৎ ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা দেন।

এই নির্দেশনা পেয়ে সিপিসি টিকটক করা সেই যুবকের অবস্থান শনাক্ত করে। পরে তাকে বেইলি রোড এলাকা থেকে আটক করা হয়। বর্তমানে আটক যুবক সিআইডি হেফাজতে আছেন। তার বিষয়ে আনুষ্ঠানিক ব্রিফ করে বিস্তারিত জানাবে সিআইডি।

ভিডিওটিতে দেখা গেছে, এক যুবক পদ্মা সেতুর কংক্রিটের রেলিংয়ের ওপর দিয়ে লোহার রেলিংয়ের দুইটি নাট খুলছেন। এই নাট দুইটি দিয়ে লোহার রেলিংটি আটকানো রয়েছে কংক্রিটের রেলিংয়ের সঙ্গে। এরপর সেই যুবক নাট দুটি বাম হাত দিয়ে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে খুলে ডান হাতে নেন এবং আবার বাম হাতের ওপর রাখেন।

নাট দুটি খুলে হাতের ওপর রেখে বলেন—‘এই হলো আমাদের পদ্মা সেতু। আমাদের হাজার হাজার কোটি টাকার পদ্মা সেতু।’ এসময় পাশ থেকে আরেকজনকে বলতে শোনা যায়, ‘নাট খুলে ভাইরাল করে দিয়েন না।’