• বুধবার   ০৬ জুলাই ২০২২ ||

  • আষাঢ় ২১ ১৪২৯

  • || ০৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

মাদারীপুর দর্পন

মুক্তিযোদ্ধারা খুব স্বাচ্ছন্দে জীবন-যাপন করতে পারছেন: শাজাহান খান

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ২৪ মে ২০২২  

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও (সাবেক নৌ পরিবহন মন্ত্রী) মাদারীপুর ২ আসনের এমপি শাজাহান খান বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বীর নিবাস তৈরি করে দিয়েছে, এটা চলমান আছে। ইতিমধ্যে বহু বাড়িঘর নির্মাণ কাজ শেষ করা হয়েছে। যেসব মুক্তিযোদ্ধাদের জমি নেই তাদের জমি ও গৃহ তৈরি করে দেওয়া হয়েছে এবং যাদের জমি আছে ঘর নেই তাদের গৃহ বা ঘর নির্মাণ করে দেওয়া হচ্ছে।

সোমবার বিকেলে মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কক্ষে মুক্তিযোদ্ধাদের নামের তালিকা যাচাই-বাছাই কার্যক্রমের সময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে শাজাহান খান এসব কথা বলেন।

শাজাহান খান এ সময় বলেন, আমাদের মুক্তিযোদ্ধারা খুব স্বাচ্ছন্দে জীবন-যাপন করতে পারছেন । মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ভাতার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। যার ফলে আমি লক্ষ করেছি তারা প্রায় প্রতি মাসেই সব মিলিয়ে সাড়ে ২২ হাজার টাকা পায় এর ফলে মুক্তিযোদ্ধারা আজকে বৃদ্ধ বয়সে তারা স্বাচ্ছন্দে জীবনযাপন করতে পারছেন । এর ফলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি সবাই খুবই খুশি। তারা মনে করেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ক্ষমতায় থাকলে বাংলাদেশের জনগণ স্বাচ্ছন্দে জীবনযাপন করতে পারবেন। তারা আবাস পাবে তারা গৃহ পাবেন তারা জমি পাবেন। আজকে আমরা খাদ্যেসহ সবকিছুতে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছি। তিনি আরো বলেন, আজকে মাছ গবাদিপশুসহ বিভিন্ন শাকসবজি সবদিক থেকেই কিন্তু এখন আমাদের উৎপাদন অনেক বেশি হচ্ছে। যায় একসময় ঘাটতিতে ছিল তা এখন আর ঘাটতি নেই। একসময় আমাদের বার্মার রুই খেতে হতো এখন আর চোখে পড়েনা বাজারে বার্মার রুই। 

শাজাহান খান বলেন, একসময় আমাদের ভারত থেকে গরু আমদানি করতে  হতো এখন আর আমাদের ভারতিয় গরু আমদানি করার প্রয়োজন নেই। আর এই সব কিছু সম্ভব হয়েছে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পরিকল্পনার দেশ স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছে। আর আমি আমরা দুই আসনের জনগণের পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে অসংখ্য ধন্যবাদ ও শুভকামনা জানাই।

এ সময় রাজৈর উপজেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা আনিসুজ্জামান, রাজৈর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সাবেক কমান্ডার সেকেন্দার আলী শেখ, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা এসএম ফজলুল হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।