• বুধবার ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১৫ ১৪৩০

  • || ১৭ শা'বান ১৪৪৫

মাদারীপুর দর্পন
ব্রেকিং:
বিশ্বের সম্ভাব্য সকল স্থানে রপ্তানি বাজার ছড়িয়ে দেয়ার আহ্বান বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা জরুরি গভীর সমুদ্র থেকে গ্যাস উত্তোলনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার পুলিশ জনগণের বন্ধু, সে কথা মাথায় রেখেই দায়িত্ব পালন করতে হবে অপরাধের ধরন বদলাচ্ছে, পুলিশকেও সেভাবে আধুনিক হতে হবে পুলিশ সপ্তাহ শুরু, উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী আইনশৃঙ্খলা সমুন্নত রাখতে পুলিশ নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে দেশপ্রেম ও পেশাদারিত্বের পরীক্ষায় বারবার উত্তীর্ণ হয়েছে পুলিশ জনগণের আস্থা অর্জন করলে ভোট পাবেন: জনপ্রতিনিধিদের প্রধানমন্ত্রী জনপ্রতিনিধির মাধ্যমে উন্নয়ন কাজের ব্যবস্থাটা আমরা নিয়েছিলাম

​ফ্যাটি লিভারের লক্ষণ দেখা দিতে পারে মুখেও

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ১৪ মার্চ ২০২৩  

​ফ্যাটি লিভার-একটি গুরুতর রোগ। এই রোগের লক্ষণ প্রথমেই চিনে নিতে পারলে চিকিৎসা ও জীবনযাত্রার বদলের মাধ্যমে রোগী সুস্থ হয়ে ওঠেন। তাই এই কয়েকটি উপসর্গ দেখলে সাবধান হন-
​ফ্যাটি লিভার রোগে আক্রান্ত হলে মুখেও এই কয়েকটি লক্ষণ দেখা দিতে পারে বলে জানাচ্ছে হেলথলাইন- ​
>> মুখ ফুলে যেতে পারে
>> ঘাড়ের নীচের দিকের অংশ কালচে হতে পারে
>> মুখের ত্বক লাল হয়ে যেতে পারে
>> মুখে Rash বের হতে পারে
>> মুখের ত্বক চুলকাতে পারে
>>ত্বক হলুদ হয়ে যেতে পারে।

​ফ্যাটি লিভারের অন্যান্য উপসর্গ​:

>> পেটে ব্যথা হতে পারে
>> বমি বমি ভাব
>> বমি হওয়া
>> খিদে না থাকা
>> ওজন দ্রুত কমা
>> পা ও শরীরের অন্যান্য অংশে জল জমা
>> প্রচণ্ড দুর্বলতা
>> বিভ্রান্তি ইত্যাদি।

কীভাবে রোগ নির্ণয়: এই অসুখ নির্ণয় করার ক্ষেত্রে প্রথমে দেওয়া হয় লিভার এনজাইম টেস্ট। এই টেস্টেই খুব সহজে রোগটি সম্পর্কে প্রাথমিক ধারণা যায়। এছাড়া চিকিৎসক আলট্রা সাউন্ড করে দেখতে পারেন। পাশাপাশি রোগটি সম্পর্কে গভীরে জানাতে দেওয়া যেতে পারেন লিভার বায়োপসি ও ফাইব্রোস্ক্যান। এই দুইটি টেস্টের মাধ্যমেই অনায়াসে রোগের পর্যায় সম্পর্কে জানা যায়। তাই দুশ্চিন্তার কোনও কারণ নেই বললেই চলে।

​রোগের চিকিৎসা কী: এই অসুখের চিকিৎসার ক্ষেত্রে কয়েকটি ওষুধ ব্যবহার করা হয়। সেই ওষুধগুলো দারুণ কাজ করে। তবে এর পাশাপাশি ডায়েট ও জীবনযাত্রায় কিছু বদল আনতে হয়। তাই এই কয়েকটি বিষয় মাথায় রাখা হল সবথেকে জরুরি-

>>মদ্যপান করবেন না
>> ওজন কমান
>> ডায়াবিটিস, কোলেস্টেরল, ট্রাইগ্লিসারাইডস কমান
>> শাক-সবজি বেশি করে খান।

​ব্যায়াম করুন নিয়মিত​: এই অসুখ থেকে রক্ষা পাওয়ার ক্ষেত্রে নিয়মিত ব্যায়াম করুন। সপ্তাহে পাঁচ দিন ৩০ মিনিট করে এক্সারসাইজ করুন। এক্ষেত্রে সবথেকে ভালো হয় সাঁতার, সাইকেল চালানো, দৌড়, হাঁটার মতো এরোবিকস এক্সারসাইজ করতে পারলে। তবেই রোগ থেকে মুক্তি পেতে পারেন। আপনি ভালো থাকবেন।