• শনিবার   ২০ আগস্ট ২০২২ ||

  • ভাদ্র ৪ ১৪২৯

  • || ২২ মুহররম ১৪৪৪

মাদারীপুর দর্পন
ব্রেকিং:

‘আত্মহত্যা’র পর জানা গেল এরশাদ শিকদারের মেয়ের অজানা জীবনের গল্প

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ৫ মার্চ ২০২২  

প্রেমিকের সঙ্গে ঝগড়ার পর আত্মহত্যা করেন এরশাদ শিকদারের মেয়ে জান্নাতুল নওরিন এশা। ২২ বছর বয়সী এই তরুণী শর্ট ভিডিও প্ল্যাটফর্ম টিকটকে বেশ জনপ্রিয়। জান্নাতুল উচ্চমাধ্যমিক পাস করার পর আর কলেজে ভর্তি হননি। ঠিক কী কারণে আর পড়াশোনা করেননি তা জানা যায়নি। তবে সূত্র জানিয়েছে, গুলশানের সুবাস্তু টাওয়ারের নবম তলার একটি বাসায় মায়ের সঙ্গেই থাকতেন এশা। তার সময় কাটতো টিকটক ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেই। প্রায়ই নতুন বন্ধু-বান্ধব দেখা যেত তার সঙ্গে।

জান্নাতুল নওরিন এশার মায়ের নাম সানজিদা নাহার। তিনি এরশাদ শিকদারের দ্বিতীয় স্ত্রী। তিনি জানান, প্রেমিককে ভিডিও কলে রেখে শুক্রবার সকাল সাড়ে পাঁচটার দিকে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলে তার মেয়ে আত্মহত্যা করেছে।

গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান জানান, জান্নাতুল এরশাদ শিকদারের মেয়ে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্লাবন ঘোষ (২৮) নামের এক ছেলের সঙ্গে সম্পর্ক ছিল জান্নাতুলের, এমনটাই জানিয়েছেন তার মা। সানজিদা নাহার অভিযোগ করে বলেন, বৃহস্পতিবার রাত নয়টার দিকে তার (প্রেমিক) সঙ্গে দেখা করতে বাসা থেকে বের হয় জান্নাতুল। পরে জান্নাতুলকে বাসার নিচে নামিয়ে দিয়ে যায় প্লাবন। এ সময় দু’জনের মধ্যে ঝগড়া ও হাতাহাতি হয়।

তিনি বলেন, বাসায় ফিরে জান্নাতুল নিজের ঘরের দরজা বন্ধ করে দেয়। সকালে মেয়ের ঘরের দরজায় ধাক্কা দিয়ে সাড়া পাওয়া যাচ্ছিলো না। পরে নিরাপত্তাকর্মীর সহযোগিতায় দরজা ভেঙে দেখা যায় ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়েছে জান্নাতুল।

জান্নাতুলকে উদ্ধারের পর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। জান্নাতুলের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজের মর্গে রাখা হয়েছে।