• শুক্রবার   ২০ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৬ ১৪২৯

  • || ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩

মাদারীপুর দর্পন
ব্রেকিং:

পণ্ডিত বিরজু মহারাজ আর নেই

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ১৭ জানুয়ারি ২০২২  

হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন ভারতের প্রখ্যাত নৃত্যশিল্পী পণ্ডিত বিরজু মহারাজ। রোববার (১৬ জানুয়ারি) রাতে হঠাৎ হৃদরোগে আক্রান্ত হন ৮৩ বয়সী এ শিল্পী। সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে। সেখানেই চিকিৎসকরা বিরজু মহারাজকে মৃত ঘোষণা করেন।

ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে, বাড়িতেই ছিলেন বিরজু মহারাজ। নাতিদের সঙ্গে খেলছিলেন তিনি। হঠাৎ বুকে ব্যথা অনুভব করেন। মাত্র কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই সব কিছু শেষ হয়ে যায়। শিল্পীর প্রয়াণে শোকাহত নৃত্য জগৎ। সম্প্রতি তার কিডনির রোগ ধরা পড়েছিল। ডায়ালাইসিসও চলছিল বলে জানা গেছে।

লখনউয়ের বিখ্যাত ‘মহারাজা’ ঘরানায় জন্ম বিরজু মহারাজের। কত্থক নৃত্যের জগতে তার পরিবারের সুনাম বহু দিনের। বাবা অচ্চন মহারাজের কাছেই প্রথম তালিম শুরু বিরজু মহারাজের। পরে চাচা লচ্ছু মহারাজ ও শম্ভু মহারাজের কাছে নাচ শেখেন। শুধু নাচ নয়, গানেও পারদর্শী ছিলেন বিরজু মহারাজ। ভালো তবলাও বাজাতেন। ছবিও অসাধারণ আঁকতেন।

মাত্র ৯ বছর বয়সে বাবাকে হারান বিরজু মহারাজ। নাচকেই নিজের জীবনের লক্ষ্য করে নেন। কলকাতার সঙ্গে নিবিড় যোগ ছিল তার। কলকাতা শহরেই নাকি প্রথম দর্শকদের সামনে পারফর্ম করেছিলেন। ১৩ বছর বয়স থেকেই নাচের তালিম দিতে শুরু করেন বিরজু মহারাজ। সেই বয়সেই দিল্লির সংগীত ভারতীতে শেখাতেন তিনি। পরে দিল্লির ভারতীয় কলা কেন্দ্র এবং কত্থক কেন্দ্রতেও শেখাতে শুরু করেন। পরবর্তীকালে নিজের স্কুল ‘কলাশ্রম’ খুলেছিলেন বিরজু মহারাজ।

সত্যজিৎ রায়ের ‘শতরঞ্জ কে খিলাড়ি’ সিনেমার দু’টি গানের কোরিওগ্রাফি করেছিলেন বিরজু মহারাজ। পরে ২০০২ সালে সঞ্জয় লীলা বানশালি পরিচালিত ‘দেবদাস’ ছবিতে ‘কাহে ছেড়ে মোহে’ গানে মাধুরী দীক্ষিতকে নাচ শিখিয়েছিলেন।পেয়েছিলেন সংগীত নাটক অকাদেমি পুরস্কার। পদ্ম বিভূষণ সম্মানে ভূষিত হয়েছিলেন। প্রিয় ‘পণ্ডিতজি’কে হারিয়ে শোকাহত তার অনুরাগীরা। অনেকেই সোশাল মিডিয়ায় শ্রদ্ধা জানিয়েছেন কত্থক কিংবদন্তিকে।