• সোমবার   ০৩ অক্টোবর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ১৮ ১৪২৯

  • || ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

মাদারীপুর দর্পন

সরকারীকরণের অনুমোদন পেল ৪৩ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৮৪৩ পদ

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ২৩ আগস্ট ২০২২  

বেসরকারি থেকে সরকারি হওয়া দেশের ৪৩ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৮৪৩ পদ সরকারীকরণের অনুমোদন পেয়েছে প্রশাসনিক উন্নয়ন সংক্রান্ত সচিব কমিটির। সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলামের সভাপতিত্বে হওয়া কমিটির বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়। এর মধ্যে ৩৪ স্কুলের ৭৩৫টি, দুটি স্কুল অ্যান্ড কলেজের ৭টি ও পাঁচটি কলেজের জন্য ১০১টি পদ রয়েছে। খবর সংশ্নিষ্ট সূত্রের।

এদিকে সচিব কমিটির অনুমোদনের জন্য উপস্থাপিত অ্যানুয়াল পারফরম্যান্স অ্যাপ্রাইজাল রিপোর্ট (এপিএআর) গতকালের সচিব কমিটিতে অনুমোদন পায়নি। সংশ্নিষ্ট সূত্রে খবর নিয়ে জানা গেছে, এপিএআরের যে পর্যায়ের কর্মকতাদের জন্য প্রযোজ্য হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে, সেই পদের সবাই সরকারি চাকরি আইন-২০১৮-এর অধীনে নেই। তাই এ ক্ষেত্রে সামান্য সংশোধন করে পরবর্তী সচিব কমিটির বৈঠকে এটি উপস্থাপনের পরামর্শ দিয়ে ফেরত পাঠানো হয়েছে। সূত্র আরও জানায়, এটি সামান্য সংশোধন হবে। আগামী বৈঠকেই হয়তো এপিএআর অনুমোদন পেতে পারে।

৪৩ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের যেগুলোর পদ প্রস্তাব অনুমোদন পেয়েছে সেগুলোর মধ্যে রয়েছে- দিনাজপুরের বিরল পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ২১টি, রংপুরের পীরগাছা জে.এ মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩১টি, চট্টগ্রামের পোমরা বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৫টি, রংপুরের মিঠাপুকুর মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩৪টি, সিলেটের রামসুন্দর অগ্রগামী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ২৭টি, মাদারীপুরের কালকিনী পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩৩, চট্টগ্রামের কধুরখীল উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৫, রাউজান আর.আর.এ.সি মডেল হাই স্কুলের ২৪, মুন্সীগঞ্জের সোনারং পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ২৭, রাজশাহীর মুণ্ডুমালা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৫, বগুড়ার কাহালু মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ২৩টি, বগুড়ার চাচাইতারা মাদলাযুক্ত উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৭, বরিশালের গৈলা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ২৮, বাকেরগঞ্জ বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ২২, গৌরনদী পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ২৮, সিলেটের মণ্ডলচণ্ডী নিশিকান্ত মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ২০টি, বালাগঞ্জ ডি.এন. উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৬, কোম্পানিগঞ্জ থানা সদর মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৫, রেবতী রমন দ্বিপাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৭, কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ড মডেল কলেজের ২, নেত্রকোনার শালদীঘা গোপাল গোপীনাথ উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৬টি, গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া ইউনিয়ন ইনস্টিটিউটের ১৫, ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা আরিফুজ্জামান (মডেল) পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ২৭টি, শেখ রাসেল ডিগ্রি কলেজের ২৬, রাজশাহীর আড়ানী মনোমোহনী উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৯, পুটিয়া পিএন উচ্চ বিদ্যালয়ের ২৬, হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ জে. কে মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৪, ঢাকার লালবাগ মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের ৬, আজিমপুর গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজের ১৯টি, ময়মনসিংহের কলসিন্দুর উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৪৪টি, বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব মহিলা মহাবিদ্যালয়ের ১৪, কিশোরগঞ্জের অষ্টগ্রাম পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ১, লক্ষ্মীপুরের রায়পুর মার্চেন্টস একাডেমি ২০, নাটোরের বেগম রোকেয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৫, পাবনার বেড়া বিবি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ৩৫, চাটমোহর আ.সি.এন মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩৭, সুনামগঞ্জের দিরাই বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ২৯, দোয়ারা বাজার মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৫, চাঁদপুরের ছেংগারচর ডিগ্রি কলেজের ২৬ ও নারায়ণঞ্জ জেলার সোনারগাঁও ডিগ্রি কলেজের ২৩টি পদ।

সংশ্নিষ্ট সূত্র জানায়, বেসরকারি থেকে সরকারি হওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর জনবল সরকারীকরণ নিয়ে দীর্ঘসূত্রতা চলছে। এই জায়গায় বিভিন্ন এলাকা থেকে নানান অভিযোগ সরকারের উচ্চ পর্যায়ে জমা হচ্ছে। তবে সম্প্রতি শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে এ-সংক্রান্ত কার্যক্রম জোরদার হয়েছে। প্রশাসনিক উন্নয়ন সংক্রান্ত সচিব কমিটিতে বেশি হারে জনবল আত্তীকরণের প্রস্তাব আসছে। সে অনুযায়ী প্রস্তাব পাসও হচ্ছে।