• শুক্রবার   ১২ আগস্ট ২০২২ ||

  • শ্রাবণ ২৭ ১৪২৯

  • || ১৪ মুহররম ১৪৪৪

মাদারীপুর দর্পন

ক্রেতাদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে ‍অনলাইন গরুর হাট

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ৭ জুলাই ২০২২  

ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মগুলো কোরবানির পশু ক্রয়-বিক্রয়ের জন্য ঝামেলামুক্ত সুবিধা প্রদান করায় ঈদ-উল-আজহাকে সামনে রেখে অনলাইন গবাদিপশুর বাজার ক্রেতা-বিক্রেতাদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান পরিচালিত বিভিন্ন অনলাইন মার্কেটপ্লেস এবং সোশ্যাল মিডিয়া ভিত্তিক ই-কমার্স পোর্টালগুলো ঈদকে সামনে রেখে কোরবানির পশু বিক্রি শুরু করেছে।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, এবারের ঈদুল আজহার জন্য দেশে পর্যাপ্ত কোরবানির পশু রয়েছে। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুসারে প্রায় ৯৭,৭৫,০০০ টির চাহিদার বিপরীতে প্রায় ১২,১২৩,৩৮৯টি কোরবানির পশুর মজুদ রয়েছে।

অনেক ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ইতিমধ্যেই ডিসকাউন্ট এবং ভাউচার অফার করছে। কেউ কেউ ক্রেতাদের পছন্দের তারিখ ও সময়ে বিনামূল্যে ডেলিভারি দিচ্ছে।

একটি ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মের সহ-প্রতিষ্ঠাতা মিস্তাহ উদ্দিন গণমাধ্যমকে বলেন, উত্তরের কয়েকটি জেলায় প্রায় ৭০০ জন প্রান্তিক কৃষক তাদের তত্ত্বাবধানে এই ঈদকে লক্ষ্য করে গবাদি পশু পালন করেছেন।

তিনি আরও বলেন, অনেক সম্ভাব্য ক্রেতা নিজ জেলায় ঈদ পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়ায় আগের বছরের তুলনায় গবাদিপশুর চাহিদা কমেছে।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী এস এম রেজাউল করিম রোববার এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে digitalhaat.gov.bd নামে একটি অনলাইন বাজার উদ্বোধন করেন।

সারাদেশে তৃতীয়বারের মতো ডিজিটাল গরুর হাট চালু করেছে সরকার। এটি শুধু কোরবানির ঈদের জন্য নয়, এটি স্থায়ীভাবে চালু থাকবে এবং সারা বছরই এই হাট থেকে গবাদি পশু কেনা যাবে।

এই বাজারটি আইসিটি বিভাগ, একশপ-এটুআই, ই-ক্যাব এবং মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের ব্যবস্থাপনায় পরিচালিত হবে। অনলাইন বাজার পরিচালনায় সহযোগিতা করবে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) এবং বাংলাদেশ ডেইরি ফার্মার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিডিএফএ)।