• শনিবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৯ ১৪২৯

  • || ০৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

মাদারীপুর দর্পন
ব্রেকিং:
প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে বঙ্গবন্ধু ট্রাস্টের সভা বাংলাদেশ সবসময় ভারতের কাছ থেকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার পায় কর ব্যবস্থাপনা তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী ১০ টাকায় টিকিট কেটে চোখ পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী আইসিওয়াইএফ থেকে পাওয়া সম্মাননা প্রধানমন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর শিক্ষা ব্যবস্থা যাতে পিছিয়ে না যায় সে ব্যবস্থা নিচ্ছি প্রধানমন্ত্রীর কাছে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল হস্তান্তর প্লিজ যুদ্ধ থামান, সংঘাত থামাতে সংলাপ করুন: শেখ হাসিনা হানিফের সংগ্রামী জীবন নতুন প্রজন্মের রাজনৈতিক কর্মীদের দেশপ্রেম ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত করবে মোহাম্মদ হানিফ ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের একজন পরীক্ষিত নেতা

মাদারীপুরে চার ডাকাতের ছয় বছরের কারাদণ্ড

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ২২ নভেম্বর ২০২২  

মাদারীপুর প্রতিনিধি মাদারীপুরে ডাকাতির প্রস্তুতি মামলায় চার আসামিকে ৬ বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সোমমার দুপুরে জেলার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ১ম আদালতের বিচারক লায়লাতুল ফেরদৌস এ দণ্ডাদেশ দেন।
সাজাপ্রাপ্ত চার আসামির মধ্যে পশ্চিম রাস্তি এলাকার রাজ্জাক খাঁ’র ছেলে রহিম খাঁ (৩৮) আদালতে উপস্থিত ছিলেন। বাকি তিন আসামি পলাতক রয়েছেন। পলাতক তিন সাজাপ্রাপ্তরা হলেন, রাজৈর উপজেলার হৃদয়নন্দী গ্রামের ফরহাদ শেখের ছেলে রিপন শেখ, শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলার মলংচড়া গ্রামের মনো দপ্তরীর ছেলে মাসুম দপ্তরী, ব্রাক্ষণবাড়িয়ার বাঞ্চারামপুর উপজেলার লুফন্দি গ্রামের শাহ আলম খানের ছেলে সোহেল খান।

আদালত সূত্র জানায়, মাদারীপুর সদর উপজেলার পশ্চিম রাস্তি এলাকার বাবুল শরীফের বাড়ির এক ভাড়াটিয়ার ঘরে ২০১৫ সালের ৭ ডিসেম্বর ডাকাতির প্রস্তুতিকালে তিন ডাকাতকে গ্রেপ্তার করে সদর থানা পুলিশ। এ সময় ডাকাতদের কাছ থেকে রাম দাসহ ডাকাতির অন্যান্য মালামালও উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় সদর থানায় চার ডাকাতকে অভিযুক্ত করে একটি মামলা করা হয়। পরবর্তীতে পুলিশ মামলার এক আসামিকে গ্রেপ্তার করে। দীর্ঘ সাত বছর পর যুক্ততর্ক শেষে আদালত চার ডাকাত দলের সদস্যকে ৬ বছরের করে কারাদণ্ড প্রদান করেন। একই সঙ্গে প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।
মাদারীপুর জেলা জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) সিদ্দিকুর রহমান সিং বলেন, 'ডাকাতি মামলায় চারজনকে ছয় বছর করে সাজা প্রদান করা হয়েছে। একই সঙ্গে ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ছয় মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এ রায়ে আমরা রাষ্ট্রপক্ষ সন্তুষ্ট।'