• শনিবার   ২৭ নভেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৩ ১৪২৮

  • || ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

মাদারীপুর দর্পন

মাদারীপুরে দাবা খেলার প্রতিযোগিতা শুরু, অংশ নিচ্ছেন ৪০ দাবারু

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ১৯ অক্টোবর ২০২১  

মাদারীপুর প্রতিনিধিঃ

মাদারীপুরে ২০ বছর পর আবারো শুরু হয়েছে দাবা খেলার প্রতিযোগিতা। তৃণমূল পর্যায় থেকে তৈরী হয়ে জাতীয় পর্যায়ে খেলার স্বপ্ন দেখছে দাবারুরা। এতে অংশ নিচ্ছে ৫টি উপজেলার স্কুল-কলেজে পড়ুয়া ১০টি দল। এতে খুশি খেলোয়াড়রা। আয়োজকরা বলছে, নিয়মিত বিভিন্ন রকমের খেলাধুলার আয়োজন করলে সমাজ থেকে দুর হবে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, ইভটিজিংসহ সামাজিক অপরাধ।

জেলা ক্রিড়া সংস্থা জানায়, প্রায় ২০ আগে নানা কারনে মাদারীপুরে বন্ধ হয়ে যায় দাবা খেলার প্রতিযোগিতা। বিষয়টি মাথায় নিয়ে আবারো এই খেলার আয়োজন করে জেলা ক্রিড়া সংস্থা। সোমবার সন্ধ্যায় জেলার পুলিশ লাইনস্ মাঠে শুরু হয় এই প্রতিযোগিতা। ১০টি দলে দুইভাগে বিভক্ত হয়ে এতে অংশ নিচ্ছে ৪০ জন দাবারু। ৮০ মিনিটের খেলায় এগিয়ে থাকা দলকে প্রতি রাউন্ডে বিজয়ী হবে। পরে দুইদলের সাথে হবে ফাইনাল রাউন্ড। দীর্ঘদিন পরে দাবা খেলায় নিতে পেরে খুশি দাবারুরা। কৌশল আর বুদ্ধিমত্তা দিয়ে একজন দক্ষ দাবারু তৈরী হলে যুদ্ধের ময়দানের মতো যেকোন কিছুই জয় করা সম্ভব বলে মনে করেন ফেডারেশনের সভাপতি ও পুলিশ সুুপার। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তবে জেলা প্রশাসক বলেন, নিয়মিত খেলাধুলাই পারে সমাজকে পরিবর্তণ করতে।

ডাসার উপজেলা থেকে খেলায় অংশ নেয়া তসলিম কাজী বলেন, এটি মূলত বুৃদ্ধি দিয়ে খেলতে হয়। মাথা গরম করে খেললে এই খেলায় পরাজয় নিশ্চিত। ধৈয্য ধরে খেললে অনেক দুর এগিয়ে থাকা যায়।

উদ্ধোধনী খেলায় প্রধান অতিথি ছিলেন মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক ও জেলা ক্রিড়া সংস্থার সভাপতি ড. রহিমা খাতুন, বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার ও দাবা ফেডারেশনের সভাপতি (উপকমিটি) গোলাম মোস্তফা রাসেল, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মনিরুজ্জামান ফকির, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট ওবায়দুর রহমান খান, পৌর মেয়র খালিদ হোসেন ইয়াদসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা।

মাদারীপুরের পুলিশ সুপার ও দাবা ফেডারেশনের সভাপতি (উপকমিটি) গোলাম মোস্তফা রাসেল বলেন, কৌশল অবলম্বনের মাধ্যমে একজন দক্ষ দাবারু তৈরী হলে কর্মক্ষেত্রে সর্বস্থানেই স্বাধীনতা ও এগিয়ে থাকা যায়।

মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক ও জেলা ক্রিড়া সংস্থার সভাপতি ড. রহিমা খাতুন বলেন, নিয়মিত খেলা  ধুলার আয়োজন করা হলে যুব সমাজ বিপদগামী হবে না। সমাজের সব ধরনের অন্যায়, অপরাধ ধিরে ধিরে কমে যাবে। 

প্রসঙ্গত, সোমবারে শুরু হওয়া এই দাবা খেলার প্রতিযোগিতা শেষ হবে ২২ অক্টোবর। সেখানে মাদারীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য শাজাহান খান প্রধান অতিথি থেকে বিজয়ীদের হাতে তুলে দিবেন  পুরষ্কার।