• শুক্রবার   ০৫ মার্চ ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ২১ ১৪২৭

  • || ২২ রজব ১৪৪২

মাদারীপুর দর্পন
ব্রেকিং:
করোনার ভ্যাকসিন নিলেন প্রধানমন্ত্রী দেশের উন্নয়নে গবেষণা ও বিজ্ঞানের বিবর্তন অপরিহার্য: প্রধানমন্ত্রী করোনা পারে নাই, আর কেউ অগ্রযাত্রা থামাতে পারবে না: প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানাল জাতিসংঘ দেশেই ডিজিটাল ডিভাইস উৎপাদন ও রফতানির পরামর্শ প্রধানমন্ত্রীর ‘অবৈধভাবে যারা ক্ষমতায় বসে তারাই দেশকে অস্থিতিশীল করে’ চার মাসে ‘অবশ্যই’ ৪৪২ প্রকল্প সমাপ্তির নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর সরকারি ব্যয়ে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে সিএজি’র প্রতি আহ্বান ঢাকা-জলপাইগুড়ি যাত্রীবাহী ট্রেন উদ্বোধন করবেন হাসিনা-মোদি আরো টিকা কেনার টাকা প্রস্তুত রাখার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

শিবচরে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেয়ে আনন্দে আত্মহারা বৃদ্ধ দম্পতি

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ২৩ জানুয়ারি ২০২১  

শিবচর প্রতিনিধিঃ মাদারীপুর জেলার শিবচর উপজেলার নলগোড়া এলাকার তৈয়ব আলী তালুকদার ও রহিমা বেগম দম্পতির আজ আনন্দের দিন। বৃদ্ধ এই পরিবারটি প্রধানমন্ত্রীর দেয়া উপহার 'ঘর' পেয়ে বাকরুদ্ধ! প্রায় ৩৭ বছর ধরে অন্যের বাড়িতে আশ্রিত থেকে শেষ বয়সে এসে মাথা গোঁজার স্থায়ী ঠিকানা পেয়ে বেশ কিছু সময় এই দম্পতির চোখে ছিল কান্নার জল। শনিবার(২৩ জানুয়ারি) সকালে মাদারীপুর জেলার শিবচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছ থেকে তিনি ঘরের কাগজপত্র বুঝে পান।

অনুভূতি জানতে চাইলে কিছু সময় চুপ করে থেকে বৃদ্ধ তৈয়ব আলী তালুকদার বলেন,'স্ট্রোক করা পর থেকে বেশি কথা বলতে পারি না। তারপরও বলছি, ছোট সময় অভাব-অনটন নিয়ে বাবার সাথে ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থানে থেকেছি। নিজ গ্রামের জায়গা-জমি কিভাবে হাত ছাড়া হয়েছিল তা জানা নেই। হয়তো বাবা তখন বেঁচে দিয়েছিলেন সব। শৈশবের বড় একটা সময় কেটেছে মামা বাড়ি থেকে। এক পর্যায়ে সেখান থেকেও চলে আসতে হয়েছে। পরে বাড়ির কাছেই মইজুদ্দিন শিকদার নামের একজনের বাড়িতে দীর্ঘ ৩৭ বছর আশ্রিত ছিলাম।'

তিনি বলেন,'বৈবাহিক জীবনে ৩ ছেলে ১ মেয়ে। বড় ছেলে কিছুটা মানসিক প্রতিবন্ধী। সকলেরই বিয়ে দেয়া হয়েছে অন্যের বাড়িতে থেকেই। আমি ভ্যান চালিয়ে সংসার চালাতাম। অসুস্থ হওয়ার পর ছেলেদের উপর নির্ভর হয়ে পড়েছি। ওরা বিভিন্ন জায়গায় কাজ করে। শেষ বয়সে এসে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ঘর পেয়ে স্থায়ী জায়গা হলো।'

আবেগ আপ্লুত  বৃদ্ধ তৈয়ব আলী বলেন,'আজকের পর থেকে আর ভাড়া থাকতে হবে না। নিজের ঘরে কষ্ট করে শেষ দিনগুলো কাটলেও মনে আর আপেক্ষ থাকবে না যে আমি গৃহহীন!'

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, মাদারীপুর জেলায় প্রথম ধাপে ৯৮৮ টি ঘর বরাদ্দ হয়েছে। এর মধ্যে ১ শত ৪৬ টি ঘর নির্মান কাজ শেষ হয়েছে যা শনিবার গৃহ ও ভূমিহীন ১৪৬ টি পরিবারের মাঝে হস্তান্তর করা হলো। ঘরগুলোর মধ্যে শিবচরে সম্পূর্ণ প্রস্তুতকৃত ৪৪ টি উপকারভোগীদের মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে।