রোববার   ১৭ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৩ ১৪২৬   ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

মাদারীপুর দর্পন
৮৮

মাদারীপুরে স্বামীকে হত্যার দায়ে স্ত্রীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

প্রকাশিত: ৫ নভেম্বর ২০১৯  

মাদারীপুর প্রতিনিধিঃ
মাদারীপুরে পরকীয়ার জেরে স্বামী আলহাজ সরদারকে পিঠার সাথে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে হত্যার দায়ে স্ত্রী আসমা বেগমকে (৩২) যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও আর্থিক জরিমানা করেছেন আদালত। মঙ্গলবার দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক নিতাই চন্দ্র সাহা এই রায় দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত আসমা বেগম জেলার কালকিনি উপজেলার ধুয়াসার গ্রামের সিরাজ ব্যাপারীর মেয়ে।

আদালত ও মামলার বিবরণী থেকে জানা গেছে, ২০১৮ সালের ১২ জানুয়ারী মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার ডাসার থানার পূর্ব বোতলা গ্রামে ছত্তার সরদারের ছেলে আলহাজ সরদারকে পরকীয়া প্রেমের কারণে তাঁর স্ত্রী আসমা বেগম পিঠার সাথে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে অচেতন করে। পরে স্বামীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। এই ঘটনায় পরের দিন ডাসার থানায় নিহতের বোন সাজেদা বেগম বাদী হয়ে স্ত্রী আসমা বেগম ও তার পরকীয়া প্রেমিক কালকিনি উপজেলার রামনগর গ্রামের লাল মাহমুদ সরদারের ছেলে রাব্বি সরদারকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। সম্প্রতি ডাসার থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জসিমউদ্দিন তদন্ত শেষে রাব্বি সরদারকে অব্যাহতি দিয়ে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। পরে আদালত মামলাটি ব্যাপক যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে আসাসি আসমা বেগমের অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত তাকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা আর্থিক জরিমানা করেন। এ সময় আসামি আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন। এই রায়ে রাষ্ট্রপক্ষ ও নিহতের স্বজনরা সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। 

নিহতের বোন ও মামলার বাদী সাজেদা বেগম বলেন, ‘আমাদের চাওয়া ছিল আসামিকে ফাঁসি দিবে আদালত। কিন্তু সেটা না দিলেও যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড দেয়ায় আমরা খুশি হয়েছি। এতে আমার মৃত ভাইয়ের আত্মা শান্তি পাবে।’
মাদারীপুর জজকোর্টের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) সিদ্দিকুর রহমান সিং বলেন, ‘বিজ্ঞ আদালতের রায়ে আমরা সন্তোষ প্রকাশ করছি। পরকীয়ার জেরে যাতে আগামীতে আর কেউ এরকম অপকর্ম করতে না পারে, এই রায়ের মাধ্যমে সেটি আবারো প্রমাণিত হলো। দোষী আসমা বেগকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও ৫০ হাজার টাকা আর্থিক জরিমানা করেন আদালত। এছাড়া অনাদায়ে আরো এক বছর কারাদন্ড প্রদান করা হয়।

এই বিভাগের আরো খবর