• রোববার   ১১ এপ্রিল ২০২১ ||

  • চৈত্র ২৮ ১৪২৭

  • || ২৯ শা'বান ১৪৪২

মাদারীপুর দর্পন
ব্রেকিং:

মাদারীপুরে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট, প্রাথীদের নেই কোন অভিযোগ

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ১ মার্চ ২০২১  

মাদারীপুর প্রতিনিধিঃ মাদারীপুর ও শিবচর পৌরসভায় উৎসবমূখর পরিবেশে ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে। রোববার সকাল ৮টায় থেকে ভোটগ্রহণ চলে বিকেলে ৪টা পর্যন্ত। তবে মাদারীপুর পৌরসভার দুটি কেন্দ্রে বিকেল ৪টার পরেও ভোটার উপস্থিতি থাকায় এ কেন্দ্র দুটিতে ভোট গ্রহণ চলে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। এদিকে প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি ভাল ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর শক্ত অবস্থানে থাকায় কোন প্রার্থীর কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

সরেজমিনে চরমুগরিয়া কলেজ, চরমুগরিয়া মার্চেন্ট উচ্চ বিদ্যালয়, থানতুলি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, শহীদ বাচ্চু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, আচমত আলী খান উচ্চ বিদ্যালয়, ডনোভান সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়সহ ১০টি ভোটকেন্দ্রে ঘুরে দেখা যায়, সকাল ৮টা থেকে প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি চোখে পড়ার মত। প্রতিটি কেন্দ্রের ভোটারদের দীর্ঘ লাইন। কেন্দ্রগুলোয় পুরুষের তুলনায় নারী ভোটারদের সংখ্যাই বেশি দেখা দেখা গেছে। ভোটকেন্দ্রগুলোয় পুলিশ, র‍্যাব, বিজিবি ও ম্যাজিস্ট্রেটদের ছিল কড়া নজরদারি। ভোটকেন্দ্রে বাড়তি কড়াকড়ি থাকায় কেন্দ্রের বাহিরে প্রার্থীদের সমর্থকদের উল্লাসও ছিল চোখে পড়ার মত। তবে দুপুর দুইটার পরে শহীদ বাচ্চু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ডনোভান সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও চরমুগরিয়া মার্চেন্টস উচ্চ বিদ্যালয়ে ভোটারের উপস্থিত ছিল না।

৭ নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী ইব্রাহীম হাওলাদার বলেন, ‘আমার ওয়ার্ডে ৪ জন প্রার্থীর। আমরা প্রার্থীররা কোন প্রকার ঝামেলায় নেই। নির্বাচনের পরিবেশ ভাল। পুলিশ প্রশাসনের নজরদারি স্বচ্ছ। জাল ভোটেরও নেই কোন সুযোগ। তাই ফলাফল যাই হবে তাই আমি মেনে নেব।’

৮ নং ওয়ার্ডের ভোটার মাসুদ সরদার বলেন, ‘ভোটকেন্দ্রে যাওয়া মাত্র মাত্র এক মিনিটে ভোট শেষ। এত সহজে ইভিএমে ভোট শেষ হবে তা আগে জানা ছিল না। দেশে এমন নির্বাচনাই হওয়ার দরকার। তাহলে আমরা জনগন মনের মত প্রাথর্ী খুজে নিতে পারবো।’

এদিকে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে শহীদ বাচ্চু সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে ভোট প্রদান করেন নৌকার প্রার্থী খালিদ হোসেন। অন্যদিকে সকাল সাড়ে ৮টায় আল জাবির উচ্চ বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে ভোট দেন বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রতিকে প্রার্থী জাহান্দার আলী জাহান।

এ সম্পর্কে জেলা নির্বাচন ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান বলেন, ‘ইভিএমে ভোট কারচুপি করার কোন সুযোগ নেই। বিএনপি প্রার্থীর এমন অভিযোগ মনগড়া। আমরা নির্বাচনকে উৎসবমূখ ও শান্তিপূর্ণ করতে মাদারীপুর পৌরসভায় ২১টি ভোটকেন্দ্রে মধ্যে ৯টি কেন্দ্রেকে ঝুঁকিপূর্ণ কিংবা গুরুত্বপূর্ণ মনে করে সেখানে আলাদা নিজরদারি ও পুলিশ ফোর্স নিয়োজিত করেছি। এ কারণে নির্বাচনে কোন প্রকার অপ্রীতিকার ঘটনা ঘটেনি। শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত অবাধ ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে।

মাদারীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহবুব হাসান বলেন, ‘নির্বাচন শান্তিপূর্ণ করতে আমাদের ৬০০ পুলিশ সদস্য ভোটকেন্দ্রগুলোয় কাজ করেছে। কোন কেন্দ্রে কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। নির্বাচনকে ঘিরে আমরা সবোর্চ্চ সর্তক অবস্থানে ছিলাম। ভোট গ্রহণ শেষেও নির্বাচনী এলাকায় আমাদের আলাদা নিজরদারি রয়েছে।’