• শুক্রবার   ২৩ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ৭ ১৪২৭

  • || ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

মাদারীপুর দর্পন
২৬৫

করোনা: আনসারদের ক্ষতিপূরণ দেয়ার সুপারিশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ২১ জুলাই ২০২০  

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) মোকাবিলায় চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ, স্থানীয় প্রশাসনসহ যেসব সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মাঠ পর্যায়ে কাজ করছেন তাদের কেউ আক্রান্ত হলে গ্রেড ভেদে ৫ থেকে ১০ লাখ টাকা দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে সরকার। আর যদি কেউ আক্রান্ত হয়ে মারা যান তাহলে এর পাঁচগুণ আর্থিক সহায়তা দেয়া হবে।

কিন্তু আনসার সদস্যদের বেতন-ভাতাদি সরাসরি রাজস্ব খাতভুক্ত না হওয়ায় তাদের এ সুবিধার আওতাভুক্ত করা হয়নি। তাই এসব আনসার সদস্যদেরও এ ক্ষতিপূরণ দেয়ার অনুরোধ জানিয়ে সম্প্রতি অর্থ মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

সম্প্রতি স্বারাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের উপসচিব মোহাম্মদ জাহেদুর রহমান স্বাক্ষরিত চিঠিটি অর্থ সবিচের নিকট পাঠানো হয়। চিঠিতে বলা হয়, অঙ্গীভূত সাধারণ আনসার সদস্যরা সংস্থা বা প্রতিষ্ঠানের চাহিদার ভিত্তিতে প্রশাসনিক মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন সাপেক্ষে মহাপরিচালক বা এ উদ্দেশে তার কাছ থেকে ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্মকর্তার মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন সরকারি, বেসরকারি ও স্বায়ত্বশাসিত সেবামূলক প্রতিষ্ঠান (হাসপাতাল), শিল্প প্রতিষ্ঠান, আর্থিক প্রতিষ্ঠানসহ (ব্যাংক, বিমা) বিভিন্ন প্ৰতিষ্ঠানে নির্দিষ্ট মেয়াদে আইনশৃঙ্খলা রক্ষা ও নিরাপত্তা সেবা প্রদানের লক্ষ্যে অর্থ বিভাগ কর্তৃক নির্ধারিত ভাতার ভিত্তিতে অঙ্গীভূত/মোতায়েন হন। উক্ত ভাতাদি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়/ বিভাগ/ অধিদফতর/ সংস্থা/ বেসরকারি প্রতিষ্ঠান থেকে তাদের প্রদান করা হয়।

বর্তমানে করোনাভাইরাস (কোভিড -১৯) এর প্রভাবজনিত কারণে এর সংক্রমণ বিস্তার রোধে সরকার কর্তৃক ঘোষিত সাধারণ ছুটি চলাকালীন সময়েও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রায় পঞ্চাশ হাজার আঙ্গীভূত আনসার সদস্য (বিশেষত; হাসপাতাল, ব্যাংক, বিমা, কলকারখানা, ডিএমপি-২০০০ গ্রুপ) নিষ্ঠার সঙ্গে তাদের দায়িত্ব পালন করছেন। কিন্তু তাদের বেতন-ভাতাদি সরাসরি রাজস্ব খাতভুক্ত নয়।

চিঠিতে আরও উল্লখ করা হয়, বর্তমান পরিস্থিতিতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সরকার ঘোষিত নির্দেশনা বাস্তবায়নকালে আনসার ও ভিডিপি অধিদফতর থেকে গত ৬ জুন পর্যন্ত আক্রান্ত বা মৃত্যুবরণকারী ভাতাভিত্তিক অঙ্গীভূত সাধারণ আনসার সদস্যদের তালিকা প্রেরণ করা হয়েছে। ওই তালিকা পর্যালোচনা করে দেখা যায়, বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৮৮ জন, কোয়ারেন্টাইনে ৯৬ জন, সুস্থ হয়েছেন ২০৩ জন আর মৃত্যুবরণ করেছেন একজন আনসার সদস্য। সর্বোমোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩৮৮ জন। যার মধ্যে ঢাকায় আক্রান্ত ৩০২ জন এবং ঢাকার বাইরে আক্রান্ত ৮৬ জন। নতুন আক্রান্ত ব্যাটালিয়ন আনসার ২ জন এবং অঙ্গীভূত আনসার ২ জন। দিন দিন এ আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, করেনাভাইরাসের সংক্রমণ বিস্তার রোধে সরকার ঘোষিত নির্দেশনা বাস্তবায়নে মাঠ প্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এবং প্রত্যক্ষভাবে নিয়োজিত সরকারের অন্যান্য কর্মচারী দায়িত্ব পালনকালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলে সরকার ক্ষতিপূরণ প্রদানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন। অর্থ বিভাগ কর্তৃক জারিকৃত এ সংক্রান্ত পরিপত্রে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের সেবা প্রদানে সরাসরি কর্মরত ডাক্তার, নার্স, স্বাস্থ্যসেবা কর্মী, করোনার প্রদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণে লকডাউন ও সরকার ঘোষিত নির্দেশনা বাস্তবায়নে নিয়োজিত মাঠ প্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, সশস্ত্র বাহিনী এবং প্রত্যক্ষভাবে নিয়োজিত সরকারের অন্যান্য কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা করোনায় আক্রান্ত এবং করোনাভাইরাসে মৃত্যুবরণ করলে গ্রেড ভেদে ক্ষতিপূরণ প্রদান করা হবে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আরও বলছে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের সেবা প্রদানে সরাসরি কর্মরত ডাক্তার, নার্স, স্বাস্থ্যসেবা কর্মী, করোনার প্রাদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণে লকডাউন ও সরকার ঘোষিত নির্দেশনা বাস্তবায়নে নিয়োজিত মাঠ প্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, সশস্ত্র বাহিনী এবং প্রত্যাক্ষভাবে নিয়োজিত সরকারের অন্যান্য কর্মকর্তা ও কর্মচারীর ন্যায় অঙ্গীভূত আনসাররাও দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। কিন্তু অঙ্গীভূত আনসার সদস্যরা সংজ্ঞা অনুসারে প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা-কর্মচারী না হওয়ায় তারা দায়িত্ব পালনকালে করেনায় আক্রান্ত হলে বা মৃত্যুবরণ করলে উক্ত পরিপত্র অনুযায়ী ক্ষতিপূরণ পাবেন না।

তদুপরি তারা জীনের সর্বোচ্চ ঝুঁকি নিয়ে সরকারের নির্দেশনা অনুসারে কাজ করে যাচ্ছে। এ পরিস্থিতিতে এ সকল আনসার সদস্যদের মনোবল দৃঢ় রাখা এবং সরকার ঘোষিত নির্দেশনা বাস্তবায়নে অধিক দায়িত্বশীল হওয়ার লক্ষ্যে তাদের ক্ষেত্রেও (করোনাভাইরাস পজিটিভ বা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ জনিত) ক্ষতিপূরণ সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করা প্রয়োজন। সে পরিপ্রেক্ষিতে অঙ্গীভূত আনসার সদস্যদের জন্য আনসার ও ভিডিপি অধিদফতর হতে অর্থ বিভাগ থেকে জারিকৃত ক্ষতিপূরণ সংক্রান্ত পরিপত্রের অনুচ্ছেদ (৩) এর বেতন গ্রেডের সর্বশেষ স্তরটি প্রস্তাব করা হয়েছে।

এ অবস্থায়, করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে সরকার কর্তৃক ঘোষিত নির্দেশনা বাস্তবায়নকালে ভাতাভিত্তিক হিসেবে নিয়োজিত অঙ্গীভূত/মোতায়েনকৃত সাধারণ আনসার সদস্যরা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলে বা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করলে তাদেরকে মানবিক বিবেচনায় অর্থ বিভাগ কর্তৃক জারিকৃত পরিপত্রের অনুচ্ছেদ (৩) এ উল্লিখিত বেতন গ্রেডের সর্বশেষ স্তর (১৫-২০ তম গ্রেড) এর ন্যায় করোনাভাইরাস পজিটিভ হলে পাঁচ লাখ টাকা এবং আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করলে ২৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ প্রদানের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণের জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।

জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর