• বৃহস্পতিবার   ১৩ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৯ ১৪২৭

  • || ২৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

মাদারীপুর দর্পন
৪২

এই ঈদে সাধারণ জিনিস দিয়েই ঘরের রূপ বদলে ফেলুন

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ২৬ জুলাই ২০২০  

এবারের ঈদ অন্যান্য বারের ঈদগুলোর মতো নয়। তাই বাইরে ঘর সাজানোর জন্য নতুন জিনিসপত্রও কিনে আনা সম্ভব নয়। তাই ঘরে থাকা সাধারণ জিনিস দিয়েই ঘরের রূপ বদল করে নিন। জেনে নিন তাহলে উপায়গুলো- 

> প্রথমেই ঘরের দেয়াল এবং মেঝে ভালোভাবে পরিষ্কার করে নিন। দেয়ালে মাকড়শা বাসা বানিয়ে থাকলে তা পরিষ্কার করে নিন। পারলে নতুন করে রং করে নিতে পারেন দেয়ালে। 

> দেয়ালে রং করা সম্ভব না হলে ওয়াল পেপার লাগিয়ে নিতে পারেন। অনলাইনেই অনেক ধরনের আর দামের ওয়াল পেপার কিনতে পারবেন। 

 বিছানার চাদরের সঙ্গে মিলিয়ে পর্দার লাগাতে পারেন > দেয়ালের রঙের সঙ্গে মিলিয়ে কনট্রাস্ট বিছানার চাদর বিছিয়ে নিন। বিছানায় কয়েকটি কুশন রাখতে পারেন। বিছানার চাদরটি যদি ঘরের সবকিছুর সঙ্গে মানানসই হয় তবে ঘরে ঢুকলেই সুন্দর এক অনুভূতি হবে। হালকা রং শরীর ও মনে এক ধরনের প্রশান্তি আনে।  

> দেয়ালে ঝুলিয়ে দিতে পারেন একটি পেইন্টিং। আবার হাতে তৈরি ওয়ালমেট লাগাতে পারেন দুই একটা।  আবার  নিজেদের প্রিয় মুহূর্তের বাঁধাই করা ছবি, ওয়াল হ্যাঙ্গিং লাগিয়ে পরিবর্তন করতে পারেন দেয়ালের পুরনো রূপ।

ঘর সাজাতে ইন্ডোর প্লান্ট রাখতে পারেন > জানালা এবং দরজায় লাগিয়ে দিন পর্দা। দেয়াল ও বিছানার চাদরের রঙের সঙ্গে মিলিয়ে পর্দার রং বাছাই করুন।

ঘর সাজাতে ইনডোর প্ল্যান্ট-এর কোনো বিকল্প হতে পারে না। ঘরে রাখা যায় এমন গাছগুলো দেখতে যেমন সুন্দর হয় তেমনি আপনার ঘরের পরিবেশ ঠাণ্ডা ও স্বাস্থ্যসম্মত রাখতে সাহায্য করে। তাই ঈদের আগেই কয়েকটি গাছ এনে রাখুন আপনার ঘরে।

এমন কিছু ওয়াল হ্যাঙ্গিং ঝুলিয়ে দিতে পারেন

> হাতে তৈরি বিভিন্ন ডিয়াইওয়াই দিয়েও ঘর সাজাতে পারেন। ঘরে থাকা পুরনো জিনিস দিয়ে তৈরি করে নিতে পারেন শোপিস বা ওয়াল হ্যাঙ্গিং। ঘরের যে কোনো জায়গায় সাজিয়ে দিন। 

> রাখতে পারেন মনের মতো মাটি বা কাঁচের শোপিস। আবার একটি ল্যাম্প দিয়েই সাজিয়ে নিতে পারেন ঘরের কোণটি।  

ঘরের সাজের অনুষঙ্গ হয়ে উঠুক বইয়ের তাক

> একটা সময় ছিল যখন কাঠের আলমারিজুড়ে শোভা পেত সারি সারি বই। আর এই বইগুলো তুলে ধরত পারিবারিক ঐতিহ্য এবং মুল্যবোধ। এখন সময়ের সঙ্গে সঙ্গে মানুষের বই পড়ার অভ্যাস কমেছে এবং প্রাধান্যহীনতায় ভুগছে বইয়ের তাক।

এই ঈদে অন্দরে আপনার রুচির ছাপ হতে পারে বইয়ের তাক। এখন অনেকেই জ্যামিতিক নকশায় আঁকা বাঁকা বইয়ের তাক পছন্দ করেন। ঘরের প্রায় প্রতিটি রুমে একটি করে বইয়ের তাক লাগাতে পারেন।

লাইফস্টাইল বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর