• বৃহস্পতিবার   ০৯ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ২৬ ১৪২৬

  • || ১৫ শা'বান ১৪৪১

মাদারীপুর দর্পন
ব্রেকিং:
বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদের প্রাণভিক্ষার আবেদন খারিজ যারা সাহায্য চাইতে পারবে না তাদের তালিকা করতে বললেন প্রধানমন্ত্রী চিকিৎসকরা কেন চিকিৎসা দেবে না, এটা খুব দুঃখজনক : প্রধানমন্ত্রী দীর্ঘদিন জেলখাটা আসামিদের মুক্তির নীতিমালা করার নির্দেশ প্রণোদনা প্যাকেজ বাস্তবায়ন হলে অর্থনীতি ঘুরে দাঁড়াবে: অর্থমন্ত্রী করোনা: ৭৩ হাজার কোটি টাকার আর্থিক সহায়তা প্যাকেজ ঘোষণা বেসরকারি হাসপাতাল চিকিৎসা না দিলেই ব্যবস্থা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্রতি উপজেলা থেকে নমুনা সংগ্রহ করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর আজ থেকে কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে সেনাবাহিনী মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে সমালোচনা করছে বিএনপি : কাদের
১৬২৯

উৎরাইলবাসীর স্বপ্নের `লিটন চৌধুরী` সেতুর নির্মানকাজ চলছে

মাদারীপুর দর্পন

প্রকাশিত: ১৫ মার্চ ২০২০  


মাদারীপুর জেলার শিবচর উপজেলার আড়িয়াল খাঁ নদে নির্মিত হচ্ছে একটি সেতু। বর্তমানে সেতুটির পাইলিংসহ সড়ক নির্মান ও আনুষঙ্গিক কাজ চলছে। 'লিটন চৌধুরী' নামের সেতুটির নির্মান শেষ হলে শিবচর উপজেলা সদরের সাথে উৎরাইল, খাড়াকান্দি, তাজপুর, মগড়া, সাদেকাবাদ, সিপাইকান্দি, গুয়াগাছিয়া, মগড়াপুকুর পাড়, শৈল্যা, শিরুয়াইল, নিলখী সহ অর্ধশত গ্রামের হাজার হাজার মানুষের যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজত হয়ে যাবে। 

আড়িয়াল খাঁ নদের এই সেতুটি মূলত উৎরাইল বাসীর দীর্ঘদিনের স্বপ্ন। এ এলাকার লোকজন জানান, আড়িয়াল খাঁ নদের তীরবর্তী গ্রামটিই শিরুয়াইল ইউনিয়নের উৎরাইল গ্রাম। উপজেলা সদরে যেতে এই এলাকার মানুষের জন্য শুধুমাত্র আড়িয়াল খাঁ নদীটি পার হতে হয়। যুগযুগ ধরে নদী পার হতে নৌকা/ট্রলারই এই এলাকার মানুষের একমাত্র ভরসা। আর এই নদী পার হতে যাত্রীদের ঘন্টার পর ঘন্টা নদীর ঘাটে বসে থাকতে হয়। মাত্র ৫ কিলোমিটার পথের দূরুত্ব শিবচর সদর পর্যন্ত। অথচ নৌপথের এই ভোগান্তির জন্য শিবচর গিয়ে দৈনন্দিন কাজ করতে দীর্ঘদিন ধরেই কষ্ট করতে হচ্ছে এ এলাকার হাজার হাজার মানুষের। ফলে এই এলাকার মানুষের দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্ন হচ্ছে আড়িয়াল খাঁ নদের 'লিটন চৌধুরী' সেতুটি।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, স্থানীয় সরকার বিভাগের অধীনে শিবচর উপজেলার আড়িয়াল খাঁ নদের উপর নির্মিত হচ্ছে ৫শত ৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের একটি সেতু। সেতুটির নামকরণ করা হয়েছে 'লিটন চৌধুরী সেতু'। এর ব্যয় ধরা হয়েছে ১ শত ২০ কোটি টাকা।  প্রস্থ ৯.৮০ মিটার। স্প্যান সংখ্যা ১১টি এবং পিয়ার ৯টি। সেতুর জন্য এ্যাপ্রোচ সড়কের দৈর্ঘ্য ১.৫০ কিলোমিটার। ক্যারেজ প্রশস্ত ৭.৩২ মিটার, ১২৩ টি পাইল, পাইলের ডায়া ৯ শ মিলিমিটার, পাইলের দৈর্ঘ্য ৪৮ মিটার ও এ্যাবাটমেন্ট সংখ্যা ২ টি।

২০১৮ সালের অক্টোবর মাসের শেষের দিকে সেতুটির ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন করেন জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ নূর ই আলম চৌধুরী এমপি।
সেতুটি নির্মান হলে উপজেলা শহরের সাথে দত্তপাড়া, শিরুয়াইল ও নিলখী ইউনিয়নের যোগাযোগের নতুন দ্বার উন্মোচন হবে।'

উৎরাইল নয়াবাজারস্থ ব্যবসায়ীরা জানান,'আমাদের দীর্ঘদিনের প্রত্যাশা ছিল এই সেতুটি। সেতুর অভাবে শিবচর যাতায়াত ভীষণ কষ্টকর হয়। তাছাড়া সন্ধ্যার পর ট্রলার চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে এই এলাকার মানুষ প্রয়োজনীয় কাজ করতে শিবচর যেতে পারে না। এখন সেতুর কাজ চলছে বেশ দ্রুত গতিতে। আমাদের স্বপ্ন পুরুণ হবার পথে।

উৎরাইল মহিলা দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষার্থীর বলেন,'আমরা নদী পার হয়ে উৎরাইলের এই মাদ্রাসায় পড়তে আসি। ট্রলারে প্রায় সময়ই দেরি হয়। দুপুরে রোদের মধ্যে ট্রলারের জন্য অপেক্ষা করতে হয়। তাছাড়া ঝড়-বৃষ্টি হলে দূর্ভোগ আরো বাড়ে। সেতুটি হয়ে গেলে এখনকার কষ্ট আর থাকবে না।'

স্থানীয়রা আরো জানান,' এই সেতুর কাজ দ্রুত শেষ হবে বলে আশা করি। কাজও বেশ দ্রুতিগতিতে চলছে। এই সেতুর মাধ্যমে আমাদের এই অঞ্চলে যোগাযোগের এক নতুন মাত্রা যোগ করবে।'

উপজেলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর